শিক্ষাভবনের ৪ কর্মকর্তা আক্রান্ত, করোনা প্রতিরোধে কমিটি গঠন

প্রকাশ: ১৬ জুন ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

পর পর চার কর্মকর্তা ও দুই কর্মচারী আক্রান্ত হওয়ার পর রাজধানীর ‘শিক্ষাভবন’ হিসেবে পরিচিতি মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরে (মাউশি) করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে।

মাউশির একাধিক সূত্র জানায়, গত এক মাসে মাউশির উপ-পরিচালক (বিশেষ শিক্ষা) সৈয়দ মইনুল হোসেন, উপ-পরিচালক (শারীরিক শিক্ষা) মো. আখতারুজ্জামান, সহকারি পরিচালক (শারীরিক শিক্ষা) মো. আবদুস সালাম ও অপর পরিচালক (শারীরিক শিক্ষা) তামান্না মুশতারী মৌ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারা সকলে নিজ নিজ বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে তাদের সহকর্মীরা জানান। এ ছাড়াও প্রশাসন এবং পরিকল্পনা ও উন্নয়ন শাখার দু’জন অফিস সহকারীও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আরও অন্তত দু’জন কর্মকর্তা ও কর্মচারীর করোনা উপসর্গ থাকায় তাদের অফিসে আসতে নিষেধ করা হয়েছে।

মাউশির সাধারণ প্রশাসন শাখা সূত্রে জানা গেছে, পর পর চারজন কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সোমবার করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে এবং এর প্রাদুর্ভাবজনিত পরিস্থিতি মোকাবিলায় মাউশির পক্ষ থেকে একটি বিশেষ কমিটি গঠন করা হয়েছে। পাঁচ সদস্যের এ কমিটিকে করোনার পাশাপাশি ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া রোগ প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়ার দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এ সংক্রান্ত অফিস আদেশে বলা হয়, কোভিড-১৯, ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া রোগ প্রতিরোধে এবং এর প্রাদুর্ভাবজনিত পরিস্থিতির মোকাবিলায় গঠিত এ কমিটির সদস্যরা মাউশির আওতাভুক্ত সকল দফতর/শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এ সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ, সংরক্ষণ, প্রাপ্ত তথ্য বিশ্লেষণ এবং করণীয় সম্পর্কে সুপারিশ প্রদান করবে।

এ কমিটিতে মাউশির পরিচালক (মনিটরিং অ্যান্ড ইভালুয়েশান) অধ্যাপক মো. আমির হোসেনকে আহ্বায়ক করা হয়েছে। সদস্য হিসেবে রয়েছেন- উপপরিচালক (মানবসম্পদ) অধ্যাপক মুহম্মদ নাসির উদ্দিন, উপপরিচালক (মানিটরিং অ্যান্ড ইভালুয়েশান) সেলিনা জামান, সহকারী পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অসীম কুমার বর্মন এবং শিক্ষা পরিসংখ্যানবিদ জগৎ জ্যোতি বসাক।

কমিটির করণীয় হিসেবে বলা হয়েছে, উল্লিখিত বিষয়ে মাউশির আওতাধীন কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অন্যান্যদের তথ্য সংগ্রহ করে তা বিশ্লেষণ এবং ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবে। প্রাপ্ত সকল তথ্য নিয়মিত অধিদফতরের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হবে। মনিটরিং সেলের সদস্যরা প্রয়োজনে ভার্চুয়াল সভায় মিলিত হবেন। এতে সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানদের মনিটরিং সেলের দৈনন্দিন তথ্য সংগ্রহের কাজে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের নির্দেশনাও দেওয়া হয় এ আদেশে।