ফারমার্স ব্যাংকের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ করিমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশ সোমবার সাহেদের উপস্থিতিতে এ আদেশ দেন।
এর আগে গত ৬ আগস্ট মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ শাহজাহান মিরাজ আসামি সাহেদের ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। দুদকের পক্ষে রিমান্ড চেয়ে শুনানি করেন প্রসিকিউটর মোশাররফ হোসেন কাজল। এ সময় আদালতে সাহেদের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।
নিজের অসুস্থতার কথা উল্লেখ করে রিমান্ড না দিতে আদালতের কাছে অনুরোধ জানান সাহেদ। শুনানি শেষে প্রতারণা ও মানি লন্ডারিং আইনে করা মামলায় সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বিচারক।
পদ্মা ব্যাংক (সাবেক ফারমার্স) দুই কোটি ৭৮ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গত ২৭ জুলাই দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এর মোহাম্মদ শাহজাহান মিরাজ বাদী হয়ে সাহেদ করিম, ফারমার্স ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের নির্বাহী কমিটির সভাপতি মাহবুবুল হক চিশতীসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।
এর আগে গত ২২ জুলাই এনআরবি ব্যাংক থেকে হাসপাতালের নামে ঋণ বাবদ দেড় কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।