ঢাকা শহরের বেওয়ারিশ কুকুর নিধনের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশ: ০২ সেপ্টেম্বর ২০২০   

সমকাল প্রতিবেদক

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন ঘোষিত ৩০ হাজার বেওয়ারিশ কুকুর নিধন/স্থানান্তরের ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে অতি সত্ত্বর কুকুর নিধনের দাবিতে মানববন্ধন করেছে নগরবাসী। বুধবার সকালে নগর ভবনের সামনে 'ঢাকা দক্ষিণ সিটি নগরবাসী'র ব্যানারে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে দেড় শতাধিক নগরবাসী অংশ নেন।

মানববন্ধনে তারা বলেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি মেয়র বেওয়ারিশ কুকুর নিধনের ঘোষণা দিয়ে খুব সময়পোযোগী ও জনদরদি পদক্ষপ নিয়েছেন। যদিও কিছু স্বার্থন্বেষী বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) প্রাণী প্রেমের নাম দিয়ে মেয়র মহোদয়ের এ সিদ্ধান্তের বিরাধিতা করছে বলে আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

তারা বলেন, বর্তমানে ঢাকা নগরীতে বেওয়ারিশ কুকুরের মাত্রাতিরিক্ত বেড়েছে। বিভিন্ন অলি-গলি ২০-৩০টি পর্যপ্ত কুকুর দল করে দখল নিয়েছে, যা অত্যন্ত ভীতিকর বিষয়ও বটে। তারা আরও বলেন, এসব কুকুরের দল কোন পথচারীকে দেখলে আক্রমণ করে বসে, অনেককে কামড়ে আহত করে। বিশেষ করে রাতের বেলায় বা ভোরে নামাজের সময় মুসল্লিদের উপর কুকুরের আক্রমণ নিত্ত-নৈমিত্তিক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কুকুরের কামড়ে যে শুধু জলাতঙ্কের মত প্রাণঘাতি রোগের ভয় থাকে তাই নয়, বরং হিংস্র কুকুরের কামড়ে তাৎক্ষণিকভাবে হতাহত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়। এছাড়া নিরাপদ সড়ক তৈরি করা বর্তমান সরকারের একটি অন্যতম প্রধান লক্ষ্য। কিন্তু যত্রতত্র বেওয়ারিশ কুকুরের ঘোরাঘুরি নিরাপদ সড়কের বড় অন্তরায়। বিশেষ করে, বেওয়ারিশ কুকুরের কারণে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা খুবই স্বাভাবিক হয়ে দাঁড়িয়েছে।

তারা বলেন,শহর-নগরী তৈরি হয়েছে জনগণের বসবাসের জন্য, প্রাণীদের জন্য নয়। শহরাঞ্চলে মানুষের কল্যাণে যতটুকু প্রাণী বসবাসের প্রয়োজন, ততটুকু ঠিক আছে। কিন্তু যে সব প্রাণী শহরাঞ্চলে মানুষের নিরাপদ বসবাসের বাঁধা বা আতঙ্ক তৈরি করবে, তাদের নিধন বা স্থানান্তর করা আবশ্যক। প্রাণীদের নিরাপদ বসবাসের স্থান বনজঙ্গল বা অভয়ারণ্য, তাদেরকে সেখানে নিরাপদে বেড়ে উঠতে দেয়াই উত্তম। তাই যে প্রাণীর আধিক্য জনমানুষের নিরাপত্তার জন্য হুমকি সৃষ্টি করে, সেটা নিধনে বাধা দেয়া নিতান্তেই স্বার্থান্বেষী আচরণ।

তারাও বলেন, প্রাণীপ্রেমীদের যদি কুকুরের প্রতি এতই ভালোবাসা থাকে, তবে তারা কুকুরগুলোকে নিজ বাসায় নিয়ে রাখলেই পারেন, জনগণকে কষ্ট দেয়ার জন্য এদেরকে রাস্তায় দায়িত্বহীনভাবে ছেড়ে দেয়া কখনই প্রহণযোগ্য হতে পারে না।

এসময় তারা ঢাকা বেওয়ারিশ কুকুর নিয়ে সিটি কর্পোরেশনের সিদ্ধান্ত দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান।