আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে বক্তব্য দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বক্তব্যে কভিড-১৯, রোহিঙ্গা, জলবায়ু পরিবর্তন, লৈঙ্গিক বৈষম্য হ্রাস, অভিবাসী শ্রমিকদের অধিকার, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাসহ বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরবেন তিনি।

সোমবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি জানান, এ বছরই প্রথমবারের মতো জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনও ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা থেকেই আগামী ১ অক্টোবর পর্যন্ত জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে সাতটি অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন। তবে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে অধিবেশন হওয়ার কারণে এবার কোনো পার্শ বৈঠক হবে না।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, মঙ্গলবার ভোর ৪টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সূচনা পর্বে বক্তব্য দেবেন। আর মূল বক্তব্য দেবেন আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর। ওই বক্তব্যেই তিনি বিস্তারিতভাবে বিভিন্ন প্রসঙ্গ তুলে ধরবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১ অক্টোবর পর্যন্ত মোট সাতটি অনুষ্ঠানে ঢাকা থেকে অংশ নেবেন।

রোহিঙ্গা সংকট প্রসঙ্গে ড. মোমেন বলেন, প্রতিবারের মতো এবারও জাতিসংঘের অধিবেশনের মূল বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গা সমস্যাটি তুলে ধরবেন। তিনি আরও জানান, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত অপরাধ বিষয়ে সাম্প্রতিক সময়ে জাতিসংঘের আদালত আইসিজেতে চলমান মামলা এবং আইসিসিতে রোহিঙ্গা নির্যাতনে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে চলমান আইনি প্রক্রিয়ার কারণে এবারের অধিবেশনে রোহিঙ্গা সমস্যা আগের বছরগুলোর মতোই গুরুত্ব সহকারে আলোচিত হবে।

এ ছাড়া অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে কভিড-১৯ মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত নানা পদক্ষেপ, এসডিজি বাস্তবায়নে বাংলাদেশের সাফল্য ও অগ্রগতি, নারী উন্নয়ন ও নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের অনুসরণীয় কার্যক্রম, দারিদ্র্য বিমোচনে গৃহীত পদক্ষেপসমূহ, সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদ দমন ও মাদকের বিস্তার রোধ, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি, গণতন্ত্র ও সুশাসনের ধারা অব্যাহত রাখা এবং সর্বোপরি বিশ্ব শান্তি রক্ষায় বাংলাদেশের অবদানের বিষয়ে বিশ্ববাসীকে অবহিত করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, এ বছর জাতিসংঘের ৭৫ বছর পূর্তি। তাই এই অধিবেশন যেমন বর্তমান বিশ্ব প্রেক্ষাপটে বহুপাক্ষিকতাবাদের প্রাসঙ্গিকতাকে সামনে নিয়ে আসবে, তেমনি বিশ্ব নেতারা আগামী বছরগুলোতে কী ধরনের জাতিসংঘ দেখতে চান, সে বিষয়ে তাদের অভিমত, চিন্তাধারা, পরিকল্পনা তুলে ধরবেন।