বড় ধরনের পরিবর্তন আসছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায়। অনলাইনে নয় বরং সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক প্রথমবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি ভর্তি পরীক্ষার নম্বর বণ্টনেও পরিবর্তন আসছে। চলতি বছরের ২০০ নম্বরের পরিবর্তে ১০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা হবে। এছাড়া বিভাগ ভিত্তিক অর্থাৎ পরীক্ষার্থী যে বিভাগে বসবাস করে সেখান থেকেই ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে। এজন্য তাকে ঢাকায় আসতে হবে না। 

মঙ্গলবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ডিন’স কমিটির বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বৈঠক শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল এবং সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম সমকালকে এসব সিদ্ধান্তের কথা জানান।

মাকসুদ কামাল বলেন, আমরা রিটেন পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ পরীক্ষাটি ১০০ নম্বরের হবে। এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ওপর থাকবে ২০ শতাংশ নম্বর। বাকি আশি শতাংশ নম্বরের মধ্যে ৩০ এমসিকিউ এবং লিখিত ৫০।

সাদেকা হালিম জানান, আমরা ভর্তি পরীক্ষা নেব। এ বিষয়ে সব অনুষদের ডিন মতামত দিয়েছেন। ডিসেম্বরে (এসএসসির) ফল প্রকাশেরর পর করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হবে। 

অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে মত দেননি কোনো ডিনই। অধ্যাপক সাদেকা হালিম জানান, অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষার ব্যাপারে কোন ডিনই মত দেননি। আমরা স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে বিভাগভিত্তিক পরীক্ষা গ্রহণ করব। যেমন: খুলনার পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা খুলনা বিভাগেই হবে, যাতে তাদের ঢাকায় আসতে না হয়। গুণগত মান ধরে রাখার জন্য আমরা এসএসসির ফলাফল দেখব এবং সেখান থেকে কীভাবে মূল্যায়ন করা যায় সে পদ্ধতি নিয়ে আরও বৈঠক করে আলোচনা করব। এসব সিদ্ধান্ত একাডেমিক কাউন্সিলে চূড়ান্ত হবে।