জনগণের প্রতি নির্দয় আচরণ বন্ধ করে সংশ্নিষ্ট বিষয়ে যথাযথ আইনি প্রক্রিয়ায় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নিজ বাহিনীর সদস্যদের নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। তিনি বলেন, জনগণের সঙ্গে খারাপ আচরণ ও নির্যাতন করার কোনো সুযোগ নেই। ঢাকা রেঞ্জের ১৩টি জেলার পুলিশ সুপার ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত বিশেষ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইজিপি এসব কথা বলেন।

পুলিশ প্রধান বিভিন্ন ইউনিটের কর্মকর্তা ও সদস্যদের সঙ্গে নিয়মিত মতবিনিময় করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রেঞ্জ কার্যালয়ে রেঞ্জের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। ঢাকা রেঞ্জ ডিআইজি হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে এতে মহানগর পুলিশ কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বিশেষ অতিথি ছিলেন।

পুলিশ প্রধান বলেন, পুলিশ হবে দুর্নীতিমুক্ত, মাদকমুক্ত, জনগণের প্রতি মানবিক, বিট পুলিশিংয়ের মাধ্যমে জনগণের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দেওয়া পুলিশি সেবা এবং জনসেবায় নিবেদিত সদস্যদের কল্যাণও নিশ্চিত করা হবে।

তিনি বলেন, সরকার সব সরকারি পেশাজীবির সুযোগ সুবিধা ও বেতন-ভাতা অনেক বাড়িয়েছে। তাই আয়ের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ জীবনযাপন করতে হবে। পুলিশের কোনো সদস্য দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবে না। পুলিশের কোনো সদস্য মাদক গ্রহণ করবে না, মাদকের ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত থাকবে না, মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখবে না। বিট পুলিশিংয়ের ব্যাপকতা ও গুরুত্বও তুলে ধরেন তিনি।

ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, প্রযুক্তিনির্ভর, জ্ঞানভিত্তিক পুলিশি ব্যবস্থা গড়ে তোলা হচ্ছে। এতে পুলিশের কাজে স্বচ্ছতা আসবে, দুর্নীতি কমবে। মানুষ সহজে সেবা পাবে।

এর আগে আইজিপি বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণকে উপজীব্য করে রেঞ্জ চত্বরে নির্মিত 'মুক্তির মহাকাব্য' ম্যুরাল উদ্বোধন করেন। তিনি ঢাকা রেঞ্জে স্থাপিত আধুনিক অপারেশন্স কন্ট্রোল রুম অ্যান্ড মনিটরিং সেন্টারের উদ্বোধনও করেন।

মতবিনিময় সভায় ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান রেঞ্জের অপরাধ পরিস্থিতি, বিশেষ উদ্যোগ, ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, পাসপোর্ট তদন্ত, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স, মাদক মামলা, মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবস্থাপনাসহ বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন।