পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগে স্বজনপ্রীতি ও বাণিজ্য হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে শিক্ষার্থী ও স্থানীয় নাগরিকরা বিক্ষোভ করেছেন। বিক্ষোভের এক দিন পর নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। 

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রেজিস্ট্রার স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

অধ্যাপক স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত বলেন, স্থানীয় একটি মহল বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে কথিত অনিয়মের অভিযোগ তুলে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা করেছিল। নিয়োগ প্রক্রিয়া স্বচ্ছ ও যথাযথ নিয়মে সম্পন্ন করতে কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে।

গত ১৮ ও ৩১ অক্টোবর দুটি পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে ১২ জন প্রভাষক, একজন পিএ-২ (উপ-উপাচার্য), দু'জন সেকশন অফিসার, একজন উপ-খামার তত্ত্বাবধায়কসহ প্রায় অর্ধশত পদে জনবল নিয়োগের ঘোষণা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ওই নিয়োগে স্বজনপ্রীতি ও বাণিজ্যের অভিযোগে গত মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে স্থানীয় সচেতন শিক্ষার্থী ও নাগরিকদের ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়। দুমকি উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে থেকে মিছিল বের হওয়া মিছিলে নেতৃত্ব দেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।