মুজিববর্ষের ওয়েবিনারে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বের প্রশংসা করেছেন বক্তারা। শেখ হাসিনা সরকার গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের প্রশংসাও করেন তারা। 'লিবারেশন অব বাংলাদেশ এন্ড দ্য ড্রিম অব সোনার বাংলা' শীর্ষক ওয়েবিনারটির আয়োজন করে জর্ডানের বাংলাদেশ দূতাবাস। মুজিববর্ষ ওয়েবিনার সিরিজের অংশ ছিল এটি।

ওয়েবিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. রিয়াদ মালিকি। ড. এ কে আব্দুল মোমেন ওয়েবিনারে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাঙালিদের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস তুলে ধরেন। বঙ্গবন্ধু শেখ হাসিনা কিভাবে তার পিতার অসমাপ্ত কাজগুলো করে যাচ্ছেন সেই দিকটিও তুলে ধরেন। এছাড়া ওয়েবিনারে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর বিষয় নিয়েও কথা বলেন তিনি।  

ওয়েবিনারে ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মালিকি বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন। বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করেন। এছাড়া তিনি সর্বদা ফিলিস্তিনিদের এবং রাষ্ট্রের প্রতি তাদের আকাঙ্ক্ষার প্রতি বঙ্গবন্ধু যে অবিচ্ছিন্ন সমর্থন দেখিয়েছেন তার প্রশংসা করেন। ড. মালিকি বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা দৃঢ়ভাবে এটি বজায় রেখেছেন।

ওয়েবিনারটি সঞ্চালনা করেন পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। এছাড়াও ওয়েবিনারে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুক হল, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদ। ওয়েবিনারে ব্যারিস্টার শাহ আলী ফরহাদ 'ফ্রম ফাদার টু ডটার: দ্য জার্নি অব সোনার বাংলা' শীর্ষক একটি প্রেজেন্টেশন প্রদর্শন করেন। সেখানে সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর বিভিন্ন অসমাপ্ত কাজগুলো যে করে যাচ্ছেন সেই দিকটি তুলে ধরা হয়। এছাড়া বাংলাদেশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথাও তুলে ধরা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের সফলতা নিয়ে 'দ্য লিডার উই নিডেড শীর্ষক' একটি ভিডিও প্রদর্শিত হয়।

ওয়েবিনারে স্বাগত বক্তব্য দেন জর্ডানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত নাহিদা সোবাহান। স্বাগত বক্তব্যে তিনি বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব এবং তার জীবনের সঙ্গে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যে ওতপ্রোতভাবে জড়িত সে দিকটি তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের সঙ্গে নেই, তবে আমরা তার স্বপ্ন ধারণ করে তার কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, ভবিষ্যতে জর্ডান দূতাবাস জাতির পিতার জীবনীর ওপর আরো ওয়েবিনার আয়োজন করতে চায়। জর্ডানিয়ান সিনেটের সাবেক সদস্য ড. সৌসান মাজালি, জর্ডানের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত এবং জর্ডান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারাও এই ওয়েবিনারের অংশ নেন। বিজ্ঞপ্তি।

বিষয় : ওয়েবিনার মুজিববর্ষ

মন্তব্য করুন