সর্বস্তরে মাতৃভাষার প্রচলন, মাতৃভাষায় শিক্ষার অধিকার এবং আদিবাসীদের বর্ণমালা সংরক্ষণের দাবিতে বর্ণমালা মিছিল করেছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন। 

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজের ঐতিহাসিক আমতলা গেট থেকে মিছিলটি শুরু হয়। বাংলা, চাকমা, মারমা, আরবিসহ বিভিন্ন ভাষার বর্ণমালা নিয়ে সজ্জিত মিছিলটি দোয়েল চত্বর, হাইকোর্ট মোড়, কদম ফোয়ারা ঘুরে প্রেস ক্লাবে এসে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সংসদের সহসভাপতি কেএম মুত্তাকীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক দীপক শীলের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক সুমাইয়া সেতু, সহকারী সাধারণ সম্পাদক খায়রুল হাসান জাহিন, সদস্য দিদারুল ইসলাম শিশির, পিরোজপুর জেলা সংসদের সভাপতি ইমন চৌধুরী ও মানিকগঞ্জ জেলা সংসদের সহকারী সাধারণ সম্পাদক রাসেল আহমেদ।

কেএম মুত্তাকী বলেন, এ ভূখণ্ড যেমন বাঙালিদের, তেমনই আদিবাসীদের। কিন্তু বর্তমান সময়ে ভূমিপুত্রদের আদিবাসী পরিচয় মুছে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। ব্রিটিশ ও পাকিস্তান শাসনামলে যেমন করে বাঙালিদের ওপর সাংস্কৃতিক আগ্রাসন চালানো হয়েছে, এখনও আদিবাসী জনগোষ্ঠীর ওপর একই রকম আগ্রাসন চালানো হচ্ছে।

সমাবেশে অন্য নেতারা বলেন, বায়ান্ন সালে যে চেতনাকে ধারণ করে আমাদের পূর্বসূরিরা ভাষা আন্দোলন করেছিলেন, সেই চেতনা থেকে আমরা বহুদূর সরে এসেছি। সরকার প্রাথমিক পর্যায়ে আদিবাসী বিভিন্ন জনগোষ্ঠীর পাঁচটি মাতৃভাষা শিক্ষার সুযোগ তৈরি করেছে। কিন্তু মাতৃভাষা শিক্ষা এবং মাতৃভাষায় শিক্ষা এক বিষয় না। সব আদিবাসী জনগোষ্ঠীকে মাতৃভাষায় শিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। একই সঙ্গে অফিস-আদালত ও উচ্চশিক্ষায় বাংলা চালু করতে হবে।

বিষয় : বর্ণমালা মিছিল বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন

মন্তব্য করুন