সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব সরস্বতী পূজা উদযাপন হচ্ছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে ভক্তরা উপবাস রেখে মন্ত্র উচ্চারণ করে বিদ্যা ও জ্ঞানের অধিষ্ঠাত্রী দেবী সরস্বতীর চরণে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করছেন।

করোনা পরিস্থিতিতে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকায় এবার পূজা মণ্ডপ এবং বিভিন্ন মন্দিরে স্বল্প পরিসরে পূজার আয়োজন করা হয়েছে। পূজার আনুষ্ঠানিকতার বাইরে অন্য কোনও আড়ম্বরতা থাকছে না। মেলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আরতি ও ধর্মীয় আলোচনা সভা কিংবা জনসমাগম হয় এমন আয়োজন সম্পূর্ণভাবে বন্ধ।

সরস্বতী পূজা উপলক্ষে পৃথক বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে হিন্দু সম্প্রদায়কে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন তারা।

করোনা পরিস্থিতিতে এবার সরস্বতী পূজার আয়োজনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ অংশ না নিলেও শুধু জগন্নাথ হল সংক্ষিপ্তভাবে পূজার আয়োজন করেছে।

মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটি ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির মেলাঙ্গনের কেন্দ্রীয় পূজামণ্ডপে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সরস্বতী পূজার আয়োজন করেছে। রামকৃষ্ণ মিশন ও মঠ পূজামণ্ডপেও একই ধরনের অনুষ্ঠানমালা থাকছে। রামকৃষ্ণ মিশন ও মঠ পূজামণ্ডপেও অনুরূপ অনুষ্ঠানমালা থাকছে। রাজধানীর রমনা কালী মন্দির ও মা আনন্দময়ী আশ্রম, ইসকন মন্দির, মিরপুর কেন্দ্রীয় মন্দির, রামসীতা মন্দিরসহ বিভিন্ন মন্দির ও মণ্ডপে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা উদযাপিত হচ্ছে। 

জাতীয় সংসদের উদ্যোগে প্রতি বছরের মতো এবারও সংসদ ভবন সংলগ্ন মানিক মিয়া এভিনিউর রাজধানী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সরস্বতীয় পূজার আয়োজন করা হয়েছে।


মন্তব্য করুন