বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল খুলে দেওয়ার দাবিতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) শিক্ষার্থীরাও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডায়না চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে আবাসিক হলের সামনে অবস্থান নেয় তারা। পরে হল খোলার বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত জানার পর তা পূর্নবিবেচনা করার দাবিও জানিয়েছে তারা।

পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী সোমবার আন্দোলনে নামেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। একপর্যায়ে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল ও শেখ রাসেল হলের ফটকে অবস্থান নেয়। দুপুর ১২টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত তারা আন্দোলন করেন। এ সময় কিছু শিক্ষার্থী হলের তালা ভাঙার চেষ্টা করেন।

এদিকে দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে আগামী ১৭ মে আবসিক হল ও ২৪ মে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলে তা পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানান আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তারা বলেন, ‘‘সরকারের সিদ্ধান্ত ‘বিচার মানি কিন্তু তালগাছ আমার’ এই ধরনের। আমরা এই সিদ্ধান্তকে কোনোভাবেই মানতে পারছি না। অবিলম্বে হল খুলে দিতে হবে। তা না হলে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।’’ আন্দোলন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে এসব কথা বলেন তারা।

এদিকে সরকারের এই সিদ্ধান্তের পর ইবির বিভিন্ন বিভাগে চলমান পরীক্ষা বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক শেখ আবদুস সালাম। তিনি বলেন, ‘আমরা পরীক্ষা নিতে গেলাম, আর ছাত্ররাও আসলো কিন্তু পরে আবার পরীক্ষা বন্ধ করতে হলো, এমন অবস্থায় পরীক্ষা নেওয়া ঠিক হবে না। তাই পরীক্ষা যা হচ্ছে, তা বন্ধ করে দিতে বলেছি। মঙ্গলবার ডিনদের আনুষ্ঠানিক সভায় এটি পাশ করা হবে। আমরা সরকারের সিদ্ধান্তের বাইরে যেতে পারি না।’