দেশের সব কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল দ্রুত খুলে দেওয়াসহ বরিশাল ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার বিচার দাবি করেছে ছাত্র ফেডারেশন ও ছাত্র ইউনিয়ন। সোমবার বিকেলে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশে এসব দাবি জানান ছাত্র ফেডারেশনের নেতারা। আর বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন এক বিবৃতিতে বলেছে, মে মাসে নয়, স্বাস্থ্যবিধি মেনে দ্রুত সময়ের মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে।

ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাহিদ সুজনের সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান খান রিচার্ডের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কিশোয়ার সাম্য, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সজীব ওয়াফী, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মাশকুর রাতুল, ছাত্র ফেডারেশনের কুমিল্লা শাখার আহ্বায়ক তানভীর হাসান, নারায়ণগঞ্জ শাখার সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস জামান ও ঢাকা মহানগর শাখার সম্পাদক অনুপম রায় রুপক।

সভাপতির বক্তব্যে জাহিদ সুজন বলেন, সারাদেশের সব কার্যক্রম স্বাভাবিক করে ফেলা হয়েছে, তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও হল খোলা হচ্ছে না। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা হল খোলার দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। সরকার ও প্রশাসনের সিদ্ধান্তহীনতার কারণে বিপুল শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে। এ অনিশ্চয়তা থেকে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন রক্ষা করতে হলে অবিলম্বে হল ও ক্যাম্পাস খুলে দিতে হবে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা কী ভয়াবহ নিরাপত্তা সংকটের মধ্যে রয়েছে, তা সাম্প্রতিক বরিশাল ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনায় আমরা বুঝতে পারছি। এমনকি আশ্চর্যজনকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত না করে মাফিয়াদের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। জাবি প্রক্টর নির্লজ্জের মতো বলেছেন, ক্যাম্পাসের বাইরের শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার দায়িত্ব তিনি নিতে পারবেন না। আমরা প্রক্টরের এই দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং অবিলম্বে তার অপসারণ দাবি করি। সবার কাছে গ্রহণযোগ্য তদন্ত কমিটি গঠন করে বরিশাল এবং জাহাঙ্গীরনগরের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার তদন্ত ও দোষীদের বিচার করতে হবে। এর আগে নেতারা বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি থেকে শুরু হয়ে শাহবাগে গিয়ে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

অন্যদিকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অবিলম্বে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার দাবি জানিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন।সোমবার বিকেলে ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ফয়েজউল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক দীপক শীল যৌথ বিবৃতিতে এ দাবি জানান।