ধর্ষণের শিকার নারীদের পুনর্বাসন করতে ও ক্ষতিপূরণ দিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লা সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ বুধবার এই রুল জারি করেন।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে আইন সচিব, মহিল ও শিশু বিষয়ক সচিবসহ মামলার বিবাদীদের এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আদালতে রিটেরপক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আব্দুল হালিম।

বিভিন্ন সময় গণমাধ্যমে প্রকাশিত তিনটি ধর্ষণের ঘটনা যুক্ত করে গত ২ জানুয়ারি হাইকোর্টে রিট করে চিলড্রেন চ্যারিটি ফাউন্ডেশন নামে একটি সংগঠন। নিউজগুলোর শিরোনাম ছিলো- 'শিশু মাইশাকে যৌন নিপীড়নের চেষ্টার পর হত্যা করে ডোবায় ফেলেন প্রতিবেশি', 'তিন বছরেও স্বাভাবিক হতে পারেনি সেই পুজা' এবং 'স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ সদস্য গ্রেফতার'।

রিটে ধর্ষণের ঘটনায় ভারতের সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া এক রায়ে আসামিকে ১০ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ দেওয়া সংক্রান্ত নজির সংযুক্ত করা হয়েছে।



মন্তব্য করুন