দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানো ও মওকুফ এবং শর্ত শিথিলের আবেদন বৃহস্পতিবার আইন মন্ত্রণালয়ে পৌঁছেছে। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করে সমকালকে বলেছেন, আবেদনটি পেয়েছি। 

আগামী রোববার মতামত দিয়ে সেটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর আশা ব্যক্ত করেন তিনি। এরপর সেটি প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো হবে।

এর আগে খালেদা জিয়ার এ-সংক্রান্ত আবেদন আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার দুপুরে সাংবাদিকদের জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, আইন মন্ত্রণালয় থেকে অভিমতসহ সেটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আসবে। এরপর এখান থেকে সেটি প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠাব।

গত বছর বৈশ্বিক মহামারি করোনা ছড়িয়ে পড়লে শর্তসাপেক্ষে সরকারপ্রধানের নির্বাহী আদেশে ২০২০ সালের ২৫ মার্চ খালেদা জিয়াকে প্রথমে ছয় মাসের জন্য শর্তসাপেক্ষে মুক্তি দেওয়া হয়। গত বছর ২৪ সেপ্টেম্বর ছয় মাসের দণ্ড মওকুফের সময় পেরিয়ে যাওয়ার আগে পরিবারের করা আবেদনের পর দ্বিতীয় দফায় ছয় মাসের জন্য খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করে সরকার, যা আগামী ২৪ মার্চ শেষ হবে। এর আগেই গত মঙ্গলবার পরিবারের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার ভাই শামীম এস্কান্দার দণ্ড স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানো ও স্থায়ী জামিন দিয়ে বিদেশে চিকিৎসার অনুমতিসহ কয়েকটি দাবি জানিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছেন।

প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাইব্যুনাল দুর্নীতি মামলায় ১৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত খালেদা ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে সাজা ভোগ করছেন।