তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রেস ক্লাবের সামনে কয়েকজন দাঁড়িয়ে বললেই আইন বাতিল করতে হবে? তা কিন্তু নয়। বাংলাদেশতো কয়েকজন নাগরিকের না, বহু নাগরিক আছে। নাগরিক বলতে শুধু ওই কয়েকজন যারা বক্তৃতা করেছেন, যারা সবসময় সরকারের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেন তাদের বোঝায় না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

গত বুধবার নাগরিক সমাবেশ থেকে একটি আল্টিমেটাম দেওয়া হয়েছে ২৬ তারিখের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের বিষয়ে।

এ বিষয়ে সরকারের মতামত জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ওনারা কয়েকজন নাগরিক মিলে এটা বলেছেন। বাংলাদেশেতো কয়েকজন নাগরিক না, বহু নাগরিক আছে। নাগরিক বলতে শুধু ওই কয়েকজন যারা বক্তৃতা করেছেন, যারা সব সময় সরকারের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেন, তাদের বোঝায় না। বাংলাদেশে আরও বহু নাগরিক রয়েছে, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি আছে হাজার হাজার লাখ লাখ।

মন্ত্রী বলেন, কয়েকজন দাঁড়িয়ে প্রেস ক্লাবের সামনে সবসময় সরকারের বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখেন। তারা দাঁড়িয়ে বললেই সেটি করতে হবে, তা কিন্তু নয়।

তিনি বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সব মানুষের নিরাপত্তার জন্য করা হয়েছে। যখন এই ডিজিটাল বিষয়টা ছিল না, তখন এই আইনের প্রয়োজনও ছিল না।

জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিল প্রসঙ্গে তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রথমতো জিয়াউর রহমান মুক্তিযুদ্ধের সময় সেক্টর কমান্ডার ছিলেন বটে। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের সময় তার ভূমিকা রহস্যজনক ছিল।