দেশের স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের জন্য শ্রেণীকক্ষের বাইরে জীববিজ্ঞান চর্চার সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য মাধ্যম বাংলাদেশ জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াড (বিডিবিও)। বিডিবিওর হাত ধরে দেশব্যাপী ছেলেমেয়েরা যেমন প্রতি বছর জীববিজ্ঞান উৎসবে মেতে ওঠার সুযোগ পেয়েছে, তেমনি ২০১৮ সাল থেকে নিয়মিতভাবে আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে পদক ছিনিয়ে এনে দেশের মর্যাদাও বৃদ্ধি করে চলেছে। 

এরই ধারাবাহিকতায় এই বছরের শুরুতে বিডিবিওর একদল উদ্যমী তরুণ সদস্য জীববিজ্ঞান চর্চাকে আরও বিস্তৃত করে তোলার লক্ষ্যে ‌'Live Problem-Solving Session (LPSS)' নামে একটি অভিনব কর্মসূচির পরিকল্পনা হাতে নেয়। এই কর্মসূচির আওতায় বিডিবিওর ফেসবুক পেজে এখন নিয়মিতভাবে জীববিজ্ঞান ভিত্তিক লাইভ অধিবেশনের আয়োজন করা হয়, যার মূল লক্ষ্য থাকে শিক্ষার্থীদের সামনে জীববিজ্ঞান সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের কৌশল হাতেকলমে প্রদর্শন করা।

বিজ্ঞানের যে কোনো শাখায় পারদর্শী হয়ে উঠতে হলে সেই শাখার তত্ত্বীয় বা থিওরিটিক্যাল দিকগুলো যেমন আয়ত্তে আনতে হয়, তেমনি এই তত্ত্বীয় জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে কী করে বাস্তবমুখী সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করা যায়, সেটিও শিখতে হয়। জীববিজ্ঞানও এর ব্যতিক্রম নয়। আর আঞ্চলিক থেকে আন্তর্জাতিক যে কোনো পর্যায়ের জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে সাফল্য অর্জন করতে হলে তো এই সমস্যা সমাধানে দক্ষ হয়ে ওঠার কোনো বিকল্পই নেই। এই কথাটি মাথায় রেখেই দেশের জীববিজ্ঞান অনুরাগী ছাত্রছাত্রীদেরকে জীববৈজ্ঞানিক সমস্যা সমাধানে পারদর্শী করে তোলার জন্য বিডিবিওর এই সৃজনশীল উদ্যোগ। LPSS-এর একেকটি অধিবেশন দৈর্ঘ্যে প্রায় চল্লিশ থেকে পঁয়তাল্লিশ মিনিটের হয়, আর তাতে অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হয় বিভিন্ন সময়ের আন্তর্জাতিক ও জাতীয় জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে সাফল্য অর্জনকারী মেধাবী প্রতিযোগীদের। এ পর্যন্ত আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে রয়েছে ২০১৯ ও ২০২০ সালের আন্তর্জাতিক জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে পরপর দু’বার ব্রোঞ্জ পদক জয়ী রাফসান রহমান রায়ান, ২০১৮ ও ২০১৯ সালের জাতীয় বায়োক্যাম্প বিজয়ী মাস্টারক্যাম্পার তাসনিম আফিফা অপলা প্রমুখ।

জীববিজ্ঞানে পারদর্শী নবীন এই অতিথিরা পুরো অধিবেশন জুড়ে তাদের নিজস্ব কৌশল ব্যবহার করে জীববিজ্ঞানের কিছু নমুনা সমস্যা সমাধান করে দেখান। সমস্যাগুলো নেয়া হয় বিগত বছরগুলোতে ঘটে যাওয়া আন্তর্জাতিক ও জাতীয় জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডের প্রশ্নপত্র থেকে। এই সমস্যাগুলো সমাধান করে দেখানোর মাধ্যমে এই অভিজ্ঞ অতিথিরা সবাইকে বুঝতে সাহায্য করেন, জীববিজ্ঞানের জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে কীভাবে জীবজগতের বিভিন্ন মজার আর কৌতূহল উদ্রেককারী সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করতে হয়। সমস্যা সমাধানের ফাঁকে ফাঁকে তারা নিজেদের অলিম্পিয়াড বিজয়ের অভিজ্ঞতা, তাদের এই সাফল্য অর্জনের পেছনের গল্প, বিভিন্ন পরামর্শ ইত্যাদি সকলের সঙ্গে ভাগ করে নেন। এ পর্যন্ত LPSS-এর টানা তিন সপ্তাহের আয়োজন সফলভাবে শেষ হয়েছে এবং দর্শকদের প্রশংসা ও ভালোবাসা কুড়িয়েছে। বাংলাদেশের জীববিজ্ঞান চর্চার ক্ষেত্রে এ ধরনের উদ্যোগ এটিই প্রথম।

৯ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া LPSS-এর চতুর্থ সপ্তাহের আয়োজনে আসতে চলেছে একটি বড় পরিবর্তন। এ পর্যন্ত আয়োজিত সবগুলো অধিবেশনে যদিও মূলত আন্তর্জাতিক ও জাতীয় পর্যায়ের প্রশ্নকে নমুনা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে, তবে আগামী ২ এপ্রিল অনুষ্ঠিতব্য বিডিবিও-সমকাল অনলাইন আঞ্চলিক জীববিজ্ঞান উৎসব (ORBO)-এর কথা মাথায় রেখে এই চতুর্থ সপ্তাহের অধিবেশনগুলোতে শুধুই আঞ্চলিক পর্যায়ের সমস্যা সমাধানের কৌশল নিয়ে আলোচনা করা হবে। এ সময় নমুনা হিসেবে ব্যবহার করা হবে বিডিবিওর পূর্ববর্তী আঞ্চলিক উৎসবগুলো থেকে সংগৃহীত প্রশ্ন, আর অতিথি হিসেবে থাকবেন জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডের প্রশ্নপত্র তৈরির সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত বিডিবিওর কয়েকজন তরুণ সদস্য। আয়োজকরা মনে করছেন, যারা আসন্ন আঞ্চলিক জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে অংশ নিতে ইচ্ছুক, তাদের প্রস্তুতিকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিতে এটি একটি দারুণ সুযোগ হয়ে উঠবে। অধিবেশনগুলোর সময়সূচি ও অন্যান্য তথ্য বিস্তারিতভাবে জানতে নিয়মিত চোখ রাখতে হবে বিডিবিওর ফেসবুক পেইজে (facebook.com/bdbo.org)। আঞ্চলিক জীববিজ্ঞান উৎসবে অংশ নিতে চাইলে এখনই রেজিস্ট্রেশন করো registration.bdbo.net এ গিয়ে।