সড়ক আইনে ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক দীপক শীলকে গ্রেপ্তার করে ৩ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর বকসিবাজার মোড়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ছাত্র ইউনিয়নের অভিযোগ, একজন মুমূর্ষু রোগীকে রক্ত দেওয়ার জন্য মোটরসাইকেল চালিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পথে বকসিবাজার মোড়ে তার পথরোধ করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। তখন তার রাজনৈতিক পরিচয় জানতে পেরে মোটরযানের কাগজপত্র দেখানোর সুযোগ না দিয়েই হয়রানিমূলক ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মিথ্যা মামলায় তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এ বিষয়ে ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ফয়েজউল্লাহ বলেন, রাজনৈতিক পরিচয় জানতে পেরে দীপক শীলের নামে এই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা করা হয়েছে। দীপক শীলের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় আন্দোলনের মধ্য দিয়ে দীপক শীলের মুক্তি নিশ্চিত করা হবে।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, এ বিষয়ে আমি অবগত নই। আমি খোঁজ নিচ্ছি।