বর্তমানে বাংলাদেশ ধর্মীয় সম্প্রীতি ও শান্তির একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। শনিবার স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে পাঠানো ভিডিও বার্তায় এ কথা বলেছেন অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশনের (ওআইসি) মহাসচিব ইউসেফ বিন আহমাদ আল ওথাইমিন। 

ভিডিও বার্তায় ওআইসি মহাসচিব বলেন, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করে এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৪ সালে ওআইসিতে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। দ্বিতীয় ওআইসি শীর্ষ সম্মেলনে বঙ্গবন্ধুর যোগ দেওয়ার উদ্দেশ্য ছিল ইসলামিক দুনিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করা। তখন থেকে বাংলাদেশ এই সংস্থার বিভিন্ন কর্মসূচিতে কার্যকরভাবে সম্পৃক্ত রয়েছে। এটি ইসলামিক সংহতির একটি উজ্জ্বল উদাহরণ।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু সারা জীবন বৈষম্য ও অসমতার বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন। তিনি সোনার বাংলা গড়ার জন্য চ্যাম্পিয়ন ছিলেন। মানুষের জন্য তিনি যা করেছেন তা সবসময় দেশের সব জনগণ মনে রাখবে এবং প্রশংসা করবে।

ওআইসি মহাসচিব আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বৈষম্যের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছেন এবং বাংলাদেশকে সোনার বাংলায় রূপান্তরের জন্য কাজ করছেন।