করোনা পরিস্থিতিতে জনসাধারণের প্রাণিজ পুষ্টির চাহিদা মেটাতে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় ভ্রাম্যমাণ পদ্ধতিতে  বুধবার থেকে সারাদেশে ন্যায্যমূল্যে দুধ, ডিম ও মাংস বিক্রি শুরু করেছে। প্রথম দিন রাজধানীর সচিবালয় গেট, খামাবাড়ি, মিরপুর-১০ নম্বর গোল চত্ত্বর ও ধানমন্ডি এলাকায় ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় শুরু হয়। এদিন রাজধানীতে এক হাজার ২০০ লিটার দুধ বিক্রি হয়েছে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ক্রমান্বয়ে ঢাকার ১০টি এলাকায় ডেইরি ও পোল্ট্রি অ্যসোসিয়েশনসহ প্রান্তিক খামারিদের সম্পৃক্ত করে ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় অব্যাহত রাখা হবে। পাশাপাশি সব জেলা ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরের উদ্যোগে দুধ, ডিম, ও মাংসের ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় চলমান থাকবে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেন, সবকিছু বন্ধ থাকলে মানুষের মাছ, মাংস, দুধ ও ডিমের চাহিদা পূরণ হবে না। 

উৎপাদক, খামারি, বিপণনকারীরাও ক্ষতিগ্রস্ত হবে। গতবছর এ খাতের সংকট উত্তরণে ভ্রাম্যমাণ বিক্রয় ব্যবস্থা, কন্ট্রোল রুম খোলা ও পরিবহনের বাধা দূর করা হয়েছিল। বন্দরে মৎস্য ও প্রাণী খাদ্য ছাড়করণেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এ বছরও প্রান্তিক খামারিদের উৎপাদিত পণ্য ভ্রাম্যমাণ বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়েছে।