জলবায়ু পরিবর্তনে সবচেয়ে ঝুঁকির মুখে থাকা দেশগুলোর অন্যতম বাংলাদেশ। এখানে প্রচুর পরিমাণে মিথেন গ্যাস নির্গত হয়। ফলে বাংলাদেশের আকাশে মিথেন গ্যাসের একধরনের রহস্যময় ধোঁয়ার আস্তরণ দেখা গেছে। মিথেন এমন এক গ্রিনহাউস গ্যাস, যার প্রভাব উৎপাদনের পর প্রথম দুই দশকে কার্বন ডাই অক্সাইডের তুলনায় ৮০ গুণ বেশি জোরালো থাকে।

বাংলাদেশে এই গ্যাস কোথা থেকে নির্গত হচ্ছে, তা জানতে স্যাটেলাইট পর্যবেক্ষণ চালাচ্ছে প্যারিসভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কেরস এসএএস। জিএইচজিএসএটি ইনকের প্রেসিডেন্ট স্টিফেন জারমেইন বলেছেন, এখন পর্যন্ত মিথেন গ্যাসের এটাই সবচেয়ে শক্তিশালী নির্গমণ। কিন্তু কোথা থেকে নির্গমণের ঘটনাটি ঘটছে, তা এখনও ধরা যায়নি।

ব্লুফিল্ড টেকনোলজিস ইউরোপীয় স্পেস এজেন্সির তথ্য বিশ্লেষণ করে বলেছে, বিশ্বে সবচেয়ে বেশি মিথেন নিঃসরণ যেসব দেশে ঘটে বাংলাদেশ তার অন্যতম। স্যাটেলাইটের মাধ্যমে তা শনাক্ত করা যায়। 

এ বিষয়ে বাংলাদেশের পরিবেশবিষয়ক মন্ত্রী মো. সাহাব উদ্দিন বলেন, আমরা এই সমস্যা নিয়ে সচেতন। হয়তো আমাদের ধানক্ষেত থেকে মিথেন নির্গমণের ঘটনাটি ঘটছে। কৃষক যখন ক্ষেতে সেচ দেয়, তখন জলাবদ্ধ মাঠে ব্যাকটেরিয়া বিপুল পরিমাণে মিথেন গ্যাস তৈরি করতে পারে। 

তার মতে, মিথেনের আরেকটি উৎস হলো মাটির নিচে থাকা খনিজ গ্যাস। মাটির উপরের স্তর উন্মুক্ত হলে ওই গ্যাস বেরিয়ে আসতে পারে। তবে এই গ্যাসের নির্গমণ কমাতে পদক্ষেপ নিতে সরকার কাজ করছে।

মন্তব্য করুন