করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বুধবার থেকে টানা ৭ দিনের বিধিনিষেধের মধ্যে জরুরি প্রয়োজনে চলাচলের জন্য 'মুভমেন্ট পাস' দেবে পুলিশ। এই পাসধারী ব্যক্তি বাধাহীনভাবে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য নির্দিষ্ট গন্তব্যে যাতায়াতের জন্য সড়কে চলাচল করতে পারবেন।

এরই মধ্যে 'মুভমেন্ট পাস' বিশেষ একটি অ্যাপও তৈরি করা হয়েছে। মঙ্গলবার এই অ্যাপের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের কথা রয়েছে।

পুলিশ সদর দপ্তর সূত্র জানায়, সদর দপ্তরের আইসিটি উইংয়ের সমন্বয়ে শুরু হতে যাচ্ছে এ কার্যক্রম। জরুরি পণ্য পরিবহন, সেবাদানসহ ব্যবসায়ী ও চাকরিজীবীদের যাচাই-বাছাই করে দেওয়া হবে এই ডিজিটাল পাস। মুদি দোকানে কেনাকাটা, কাঁচা বাজার, ওষুধ, চিকিৎসা, কৃষিকাজ, পণ্য পরিবহন ও সরবরাহ, ত্রাণ বিতরণ, মৃতদেহ সৎকার, ব্যবসা ও অন্যান্য ক্যাটাগরিতে দেওয়া হবে এই পাস। যাদের বাইরে চলাফেরা প্রয়োজন কিন্তু কোনো ক্যাটাগরিতেই পড়েন না তাদের 'অন্যান্য' ক্যাটাগরিতে পাস দেওয়ার বিষয়ে বিবেচনা করা হবে।

পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া) মো. সোহেল রানা জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণ রোধে লকডাউনের সময় জরুরি প্রয়োজনে চলাচলের জন্য মঙ্গলবার 'মুভমেন্ট পাস' অ্যাপের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে। রাজারবাগ পুলিশ অডিটরিয়ামে
বেলা সাড়ে ১১টায় আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ এই অ্যাপের উদ্বোধন করবেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, সড়কে কোথাও চলাচলের কারণে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হলে এ পাস দেখালেই তার পরিচয় নিশ্চিত হয়ে যেতে দেওয়া হবে। কোনো ব্যক্তির স্বজন যদি অন্য জেলায় মারা যান, তবে তিনি অ্যাপের মাধ্যমে সুনির্দিষ্ট কারণ দেখিয়ে পাসের জন্য আবেদন করতে পারবেন। আবেদন যৌক্তিক হলে তিনি পাস পাবেন।

পুলিশ সদর দপ্তরের ওয়েবসাইট এবং 'মুভমেন্ট পাস' অ্যাপ থেকে আবেদন করা যাবে এই পাসের জন্য। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর https://movementpass.police.gov.bd/ ওয়েবসাইটে গিয়েও আবেদন করা যাবে। আবেদনকারীকে নিজের ফোন নম্বর, জন্ম তারিখ, জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নম্বর ও ছবিসহ বেশ কয়েকটি তথ্য দিতে হবে। কোন থানা থেকে কোন থানা এলাকায় যাবেন সেই তথ্যও দিতে হবে। সব তথ্য দেওয়ার পর স্বয়ংক্রিয়ভাবেই চলে আসবে ই-পাস। একটি পাসের মেয়াদ থাকবে কয়েক ঘণ্টা।