পাকিস্তানের সেনাবাহিনীকে দেশটির 'সবচেয়ে বড় ভূমিদস্যু' বলে আখ্যায়িত করেছে লাহোরের হাইকোর্ট।

ভূমি দখলের অভিযোগে করা এক পিটিশনের শুনানি চলাকালে গত বুধবার লাহোর হাইকোর্টের পক্ষ থেকে ক্ষোভ ছেড়ে এমন মন্তব্য করা হয়।

শুনানিতে প্রধান বিচারপতি মোহাম্মদ কাশিম খান বলেন, সেনাবাহিনী যেভাবে সাধারণ মানুষের জমি দখল করছে তা ভূমিদস্যুতা ছাড়া আর কিছুই না।

ইভাকিউ ট্রাস্ট প্রোপার্টি বোর্ডের কাছ থেকে লিজ নেওয়া জমি দখল না করতে সেনাবাহিনীর প্রতিরক্ষা গৃহায়ন কর্তৃপক্ষকে (ডিএইএ) আদেশ দেওয়ার আবেদন জানিয়ে হাইকোর্টে পিটিশনটি দাখিল করেন তিন নাগরিক।

ওই পিটিশনের শুনানি চলাকালেই ভূমি দখল নিয়ে পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন লাহোর হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি। খবর রিপাবলিক ওয়ার্ল্ড ডটকমের।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী হাইকোর্টের একটি জমিও দখল করেছিল উল্লেখ করে ওই ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে বিচারপতি খান বলেন, তিনি বিষয়টি নিয়ে পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়াকে একটি চিঠি দিতে হাইকোর্টের রেজিস্ট্রারকে নির্দেশ দেবেন।

এ ছাড়া ভূমি দখলের বিষয়টির সত্যতা নিরূপণে সেনাবাহিনীর লাহোর করপসের কমান্ডারকে আদালতে তলব করা হতে পারে বলেও উল্লেখ করে তিনি।

মন্তব্য করুন