ফেসবুকে ভুয়া আইডি খুলে নিজেকে পাইলট হিসেবে পরিচয় দিতেন ফিরোজ আলম। এই পরিচয়ে তিনি একাধিক তরুণীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন। শুধু প্রেমই নয় তরুণীদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেন কয়েক লাখ টাকা।

এভাবে সাইবার প্রতারণা করেও এতদিন ধরা-ছোঁয়ার বাইরে ছিলেন। তবে শেষরক্ষা হয়নি। টেলিভিশনের এক সংবাদ পাঠিকার সঙ্গে একইরকম প্রতারণার অভিযোগে রোববার রাতে রংপুর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের সাইবার অপরাধ তদন্ত বিভাগ এ অভিযান চালায়।

সাইবার অপরাধ তদন্ত বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নাজমুল ইসলাম বলেন, গ্রেপ্তার যুবক ফারাবি ইসলাম শাওন নামে ফেসবুকে ভুয়া আইডি খুলে প্রতারণা করে আসছিলেন। তিনি মেয়েদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ার পর নানাভাবে জিম্মি করে টাকা হাতিয়ে নিতেন। রসায়নবিদ্যায় গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করলেও নিজের মেধাকে তিনি ভালো কাজে লাগাননি। বরং সাইবার প্রতারণায় দক্ষ হয়ে উঠেছিলেন। তিনি বিবাহিত ও এক সন্তানের জনক। সম্প্রতি জনপ্রিয় একটি টিভি চ্যানেলের এক সংবাদ পাঠিকা তার প্রতারণার ফাঁদে পরেন। তার অভিযোগের ভিত্তিতেই তদন্ত শুরু করে সিটিটিসি। একপর্যায়ে প্রযুক্তির সহায়তায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় আদাবর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা হয়েছে।

ভুক্তভোগী নারী পুলিশকে জানান, ফেসবুকে দেড় বছর আগে ফিরোজের সঙ্গে পরিচয় হয়। এ পর্যন্ত বাবার চিকিৎসার প্রয়োজনসহ নানা কারণ দেখিয়ে তার কাছ থেকে প্রায় ১৭ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে। প্রথমদিকে তার প্রতারণার বিষয়ে কিছুই বুঝতে পারেননি ওই নারী। সাম্প্রতিক নানা ঘটনায় বিষয়টি স্পষ্ট হওয়ার পর তিনি মামলা করেন।

বিষয় : ফেসবুক পাইলট প্রেম

মন্তব্য করুন