মেট্রোরেলের দ্বিতীয় ট্রেন সেট (ছয় বগিতে এক সেট) ঢাকায় পৌঁছেছে।

মঙ্গলবার রাতে ট্রেনটি নদী পথে মেট্রোরেলের দিয়াবাড়ি ডিপো সংলগ্ন তুরাগ নদী ঘাটে এসে পৌঁছায়। বুধবার খালাস শুরু হবে।

মেট্রোরেল প্রকল্পের বাস্তায়ননকারী সংস্থা ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এম, এ, এন, ছিদ্দিক সমকালকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

দ্বিতীয় ট্রেন সেটটি গত ২১ এপ্রিল জাপানের কোবে বন্দর থেকে জাহাজে যাত্রা করে ৯ মে বাংলাদেশের মোংলা বন্দরে পৌঁছায়। ২৪ মে মোংলা থেকে ঢাকার উদ্দেশেঁ যাত্রা করে ট্রেনবাহী বার্জগুলো। ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের কারণে বার্জগুলো ২৬ মে থেকে দুই দিন ঝালকাঠিতে নোঙ্গর করে রাখা হয়।

২৮ মে ফের যাত্রী করে মঙ্গলবার এসে পৌঁছায়। ২১ এপ্রিল মেট্রোরেলের প্রথম ট্রেন সেট ঢাকায় আসে। গত ১১ মে দিয়াবাড়িরর ডিপোতে প্রথম ট্রেনটির 'রিসিভিং টেস্ট' হয়েছে; এ সময় ট্রেনটির ছয়টি বগি যুক্ত করে ধীরগতিতে চালিয়ে দেখা হয়।

ডিএমটিসিএল'র ব্যবস্থাপনা পরিচালক সমকালকে বলেছেন, প্রথমটির মতো দ্বিতীয় ট্রেন সেটটিও ডিপোতে আনার পর ১৯ ধরনের পরীক্ষা করা হবে। এরপর বলা যাবে কবে নাগাদ পরীক্ষামূলক যাত্রা (ট্রায়াল রান) করা হবে। তিনি আশা করছেন, আগামী আগস্ট মাস নাগাদ ট্রায়াল রান শুরু যাবে।

রাজধানীর উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল থেকে ২০ দশমিক ১ কিলোমিটার দীর্ঘ দেশের প্রথম মেট্রোরেল (এমআরটি-৬) পথে মোট পাঁচ সেট ট্রেন চলবে। তৃতীয় ও চতুর্থ সেট আগস্টে এবং পঞ্চম সেট আসবে সেপ্টেম্বরে। বিদ্যুৎচালিত প্রতি সেটে বগি থাকবে ছয়টি করে।

প্রায় ২১ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন এমআরটি-৬ এ স্টেশন থাকবে ১৬টি। তিনটি প্যাকেজে মেট্রোরেলের কাজ চলছে। প্রায় ১৫ কিলোমিটার উড়াল রেলপথ নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। আগামী ডিসেম্বরে দিয়াবাড়ি থেকে আগারগা‎ঁও পর্যন্ত ১১ কিলোমিটার মেট্রোরেল ট্রেন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে আশা করা হচ্ছে।