করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য নওগাঁ পৌরসভা এলাকায় ও নিয়ামতপুর উপজেলায় সাত দিনের জন্য কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ৩ জুন রাত ১টা থেকে ৯ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত এই লকডউন কার্যকর থাকবে।

বুধবার দুপুরে নওগাঁ জেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় কঠোর লকডাউনের এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় ১৫টি নির্দেশনার কথা জানান জেলা প্রশাসক

নওগাঁ জেলা প্রশাসক হারুন অর রশীদ সমকালকে এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, হঠাৎ করে করোনা সংক্রমণ বেড়ে গেলেও পুরো নওগাঁ জেলা লকডাউন করার কোনো প্রয়োজন নেই।

তিনি জানান, লকডাউনের সময় নওগাঁ পৌরসভা এলাকায় ও নিয়ামতপুর উপজেলায় বাস, মাইক্রোবাস, অটোরিকশা, রিকশা, মোটরসাইকেল ইত্যাদি যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া লকডাউন এলাকায় নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৭টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত উন্মুক্ত স্থানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেনা বেচা করা যাবে।

লকডাউনের বিধিনিষেধ

জেলা প্রশাসক বলেন, নওগাঁ পৌরসভা এলাকা ও নিয়ামতপুর উপজেলায় শপিংমলসহ অন্যান্য দোকানপাট; গরু-ছাগলের হাটসহ অন্যান্য হাট, খাবারের দোকান, হোটেল-রেস্তোরাঁ বন্ধ থাকবে। তবে ওষুধের দোকান খোলা থাকবে।

তিনি বলেন, অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। জরুরি প্রয়োজনে বের হলে অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে হবে। এ ছাড়া জুম্মার নামাজসহ প্রতি ওয়াক্তের নামাজে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সর্বোচ্চ ২০ জন মুসল্লি অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

লকডাউনের বিধিনিষেধ

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, লকডাউনের সময়ে নির্দেশনা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার প্রকৌশলী মো. আব্দুল মান্নান ও সিভিল সার্জন ডা. একেএম আবু হানিফ।

বিষয় : নওগাঁ নিয়ামতপুর লকডাউন সর্বাত্মক লকডাউন

মন্তব্য করুন