বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) এবং জনতা ব্যাংক লিমিটেড, ইউজিসি ভবন শাখার মধ্যে কর্পোরেট গ্যারান্টির আওতায় হোলসেল রিভলবিং সাধারণ গৃহ নির্মাণে ১০০ কোটি টাকার একটি ঋণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এই চুক্তির আওতায় ইউজিসির কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা কর্পোরেট গ্যারান্টির বিপরীতে জমি ও ফ্ল্যাট কিনতে ২০ থেকে ৭৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ পাবেন। 

কমিশনের সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ড. ফেরদৌস জামান এবং জনতা ব্যাংক লিমিটেড, ইউজিসি ভবন কর্পোরেট শাখার ব্যবস্থাপক মো. সাজ্জাদ হোসেন নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে বৃহস্পতিবার চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। 

২০ বছর মেয়াদী সরল সুদে এই ঋণ সহজ কিস্তিতে পরিশোধ করা যাবে। ঋণ গ্রহণের ছয় মাস পর থেকে এর কিস্তি আদায়যোগ্য হবে। 

কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীরের সভাপতিত্বে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের, জনতা ব্যাংক লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক আবদুর রব খান এবং উপ- মহাব্যবস্থাপক রুহুল কবির। অনুষ্ঠানে ইউজিসি সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ড. ফেরদৌস জামান স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রফেসর আলমগীর বলেন, এ ঋণ চুক্তি কমিশনের কর্মরতদের জন্য একটি সুযোগ। এ ঋণ সুবিধার মাধ্যমে ইউজিসির কর্মকর্তা, কর্মচারীদের বাড়ি বা ফ্ল্যাট কেনার স্বপ্ন পূরণ করতে পারবে।

জনগণের করের টাকার সর্বোত্তম ব্যবহারের প্রতি তিনি অনুরোধ জানান। 

প্রফেসর আবু তাহের বলেন, সবচেয়ে কম সুদের হারের এই ঋণে কোনো ধরনের গোপনীয় চার্জ থাকবে না।

তিনি জনতা ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে হোলসেল রিভলবিং ঋণের জন্য ধন্যবাদ জানান। এই ঋণের জন্য ইউজিসির কেউ ঋণ খেলাপি হবে না বলে তিনি ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে আশ্বাস প্রদান করেন। 

আবদুর রব খান বলেন, ইউজিসির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শর্তসাপেক্ষে ১০০ কোটি টাকার ঋণ অনুমোদন করা হয়েছে। এই ঋণ চুক্তির মাধ্যমে ইউজিসির সঙ্গে জনতা ব্যাংক লিমিটেডের নতুনভাবে সম্পর্কের দ্বার উন্মেচিত হবে। 

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ইউজিসির বিভাগীয় প্রধান, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন, কর্মচারী ইউনিয়নের প্রতিনধিসহ ইউজিসি ও জনতা বাংক লিমিটেডের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। 

মন্তব্য করুন