ইতালিতে ফিরে যাওয়ার ফ্লাইট চালু, বৈধ অভিবাসীদের বসবাসের অনুমতির মেয়াদ বাড়ানো ও সহজ শর্তে রি-এন্ট্রি ভিসা দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেছেন প্রবাসীরা। 

রোববার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন করেন ছুটিতে দেশে এসে আটকে পড়া ইতালিপ্রবাসীরা। কর্মসূচিতে বক্তারা ইতালি সরকারের সঙ্গে কূটনৈতিক তৎপরতা বাড়ানোর মাধ্যমে কর্মস্থলে ফিরে যাওয়ার ক্ষেত্রে সব বাধা দূর করতে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

'ইতালিপ্রবাসী, বাংলাদেশি' ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য দেন মুখপাত্র অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ইমাম হোসাইন রতন, অনিক হাওলাদার, শাহজাহান মোল্লা, মো. গিয়াসউদ্দিন, ছান্টু কাজী প্রমুখ।

ইমাম হোসাইন রতন বলেন, 'আমরা ইতালিতে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতিপ্রাপ্ত। দীর্ঘদিন ধরে আমরা ইতালির নাগরিকদের সঙ্গে কাজ ও সংস্কৃতিতে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান করে আসছি। চলতি বছরের শুরুর দিকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমতে থাকায় বহু প্রবাসী পরিবার-পরিজনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে বা অন্যান্য কাজে দেশে আসি। কিন্তু ভারতীয় বা ডেলটা ভেরিয়েন্টের অজুহাতে গত এপ্রিলের শেষ দিকে ইতালিতে প্রবেশে দেশটির সরকার যে নিষেধাজ্ঞা দেয়। সেই নিষেধাজ্ঞা এখনও চলমান।'

তিনি আরও বলেন, 'এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার কারণে সাড়ে পাঁচ হাজারের মতো ইতালিপ্রবাসী বাংলাদেশি ফেরত যেতে পারেননি। এ কারণে নানা সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছি। অনেকেই স্ত্রী-সন্তানদের ইতালিতে রেখে দেশে এসে আটকা পড়েছেন, অনেকেই এরই মধ্যে চাকরি হারিয়েছেন, কারও বা চাকরির মেয়াদ শেষ হওয়ার পথে, অনেকের তথ্য নবায়নের সময় শেষ হয়ে গেছে। সময়মতো ইতালি ফিরতে না পারায় আমরা যেমন অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি, তেমনি দেশ বঞ্চিত হচ্ছে রেমিট্যান্স থেকে।'

মানববন্ধন শেষে আয়োজকদের পক্ষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ এবং ডিসি ডিপ্লোমেটিক গুলশানের মাধ্যমে ইতালির রাষ্ট্রদূত এনরিকো নুনজিয়াতা বরাবর স্মারকলিপি দেওয়া হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।