নাটোরের লালপুরে করোনাকালে সরকারি বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে বউভাত অনুষ্ঠানে ১২০০ জনকে দাওয়াত করে খাওয়াতে গিয়ে দণ্ডিত হয়েছেন ওয়ালিয়া ইউনিয়নের বিভাগ গ্রামের রণজিত প্রামাণিক। পুলিশ তাকে আগের দিন সতর্ক করলেও তিনি অতিথিদের আপ্যায়নের আয়োজন করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত শনিবার বিকেলে তাকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করে অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেন।

লালপুর উপজেলা নির্বাহী অফিস সূত্রে জানা যায়, রণজিত প্রামাণিক সম্প্রতি পাবনার ঈশ্বরদীতে তার ছেলেকে বিয়ে দেন। সেই বিয়ের বউভাতের অনুষ্ঠান ছিল গতকাল দুপুরে। প্রশাসন বিষয়টি শুক্রবার জানতে পেরে তাকে বেশি লোক সমাগম করতে নিষেধ করে। কিন্তু তিনি সেই নিষেধ অমান্য করে বাড়িতে ব্যাপক আকারে বউভাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। বিকেল ৩টার দিকে ভারপ্রাপ্ত ইউএনও শাম্মী আক্তার অনুষ্ঠানস্থলে গিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আয়োজক রণজিত প্রামাণিককে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করে অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেন।

রণজিত প্রামাণিক বলেন, 'অনেক আগেই লোকজনকে দাওয়াত করা হয়েছিল। গতকাল সবাই বাড়িতে এসে পড়ায় তাদের আর ফেরাতে পারিনি। বারবার চেষ্টা করেও স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে অনুষ্ঠান পরিচালনা করা যায়নি। আমার ভুল হয়ে গেছে। এমন ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি।'

লালপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) শাম্মী আক্তার বলেন, 'করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। এই অবস্থায় জমায়েত না করার জন্য রণজিত প্রামাণিককে বলা হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা অমান্য করেছেন। সেখানে গিয়ে অধিকাংশ অতিথির মুখে মাস্ক দেখা যায়নি। তাই আয়োজককে জরিমানা করা হয়।'


বিষয় : নাটোর লালপুর সরকারি বিধিনিষেধ

মন্তব্য করুন