অনলাইন ক্লাস শেষ হলেই পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) কর্তৃপক্ষ। পুরোপুরি স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বশরীরে ক্যম্পাসে নেওয়া হবে পরীক্ষা। বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভায় এ সিদ্ধান্ত হয় বলে সমকালকে নিশ্চিত করেছেন উপ-উপাচার্য (অ্যাকাডেমিক) অধ্যাপক বেনু কুমার দে। 

তিনি বলেন, আটকে থাকা পরীক্ষাগুলোর মধ্যে ইতোমধ্যে কয়েকটি বিভাগের পরীক্ষা নেওয়া শুরু হয়েছে। আর অনলাইন ক্লাস শেষ হলে যেকোন বিভাগ পরীক্ষা নিতে পারবে। এক্ষেত্রে পরীক্ষা কমিটির সভাপতি, বিভাগীয় সভাপতি, ডিন, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এবং প্রক্টরের মধ্যে সমন্বয় করতে হবে। তবে কোথাও যাতে ভিড় না হয়, পরিবেশের যেন কোন ক্ষতি না হয় সেদিক খেয়াল রাখতে হবে। ছাত্ররা নিশ্চিত করেছে হল না খুললেও তারা পরীক্ষা দিতে পারবে। তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এদিকে অনলাইন ক্লাসের ভিত্তিতে পরীক্ষা নেওয়ার সিন্ধান্তকে ইতিবাচকভাবে দেখছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জ্যেষ্ঠ শিক্ষক সমকালকে বলেন, শিক্ষার্থীদের কষ্ট আমরা বুঝি। অনেক বিভাগ আছে যাদের অনলাইনে ক্লাস শেষ হয়েছে। পরীক্ষার কারণে শিক্ষার্থীরা আটকে আছে। এতে শিক্ষার্থীরা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে। ফলে এই পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত সঠিক হয়েছে। 

ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্সুরেন্স বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মাসুমা মিমি সমকালকে বলেন, আমাদের সব কোর্স অনলাইনে শেষ হয়েছে। শিক্ষকরা চলতি মাসের ২২ তারিখে পরীক্ষার একটি মৌখিক তারিখ দিয়েছেন। পরীক্ষা ঝুলে থাকার কারণে চাকরির  প্রস্তুতিও নিতে পারছি না। পরীক্ষা শেষ হলে অনেকেই চাকরির পড়াশোনায় মনোযোগ দিতে পারবে। 

সমাজতত্ত্ব বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মেহেদি হাসান বলেন, গত তিনমাস ধরে আমাদের অনলাইন ক্লাস বন্ধ আছে। সহপাঠীরা সোমবার বিভাগের সভাপতির কাছে গিয়ে অনলাইনে ক্লাস সম্পন্ন করে পরীক্ষা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে।

ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন এস এম সালামত উল্যা ভূঁইয়া সমকালকে বলেন, 'আমার অনুষদের প্রায় সব বিভাগের ৯৫ শতাংশ ক্লাস অনলাইনে সম্পন্ন করা হয়েছে। দুয়েকটি বর্ষে হয়ত অল্প ক্লাস বাকি আছে। তবে শিক্ষকদের দ্রুত ক্লাস সম্পন্ন করতে অনুরোধ করা হয়েছে। শেষ হলে অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সঙ্গে সমন্বয় করে পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করা হবে।'

বিষয় : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যা্লয় অনলাইনে ক্লাস

মন্তব্য করুন