সুনামগঞ্জের হাওরে বাঁধ ব্যবস্থাপনায় প্রকৃত কৃষক-মৎসজীবীদের স্বার্থ ও জীববৈচিত্র্য রক্ষার দাবি জানিয়েছেন পানি আধিকার ফোরামভুক্ত বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধিরা।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার কয়েকটি ফসল রক্ষা বাঁধ এলাকায় তথ্যানুসন্ধান শেষে জেলা প্রশাসক, পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে এ দাবি জানান তারা।

সম্প্রতি সরেজমিনে সুনামগঞ্জ সদরের ও বিরামপুরের বিভিন্ন বাঁধ এলাকা পরিদর্শন করেন বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) বিভাগীয় সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট শাহ সাহেদা, ফিল্ড অফিসার আল আমিন সরদার, নাগরিক উদ্যোগের কর্মসূচি কর্মকর্তা মো. মাহবুব আক্তার, নিজেরা করি-র কর্মসূচি সংগঠক মিজানুর রহমান ও এসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট (এএলআরডি)-র কর্মসূচি কর্মকর্তা অ্যাডভোকেট রুলি ইসলাম ও এ. কে. এম. বুলবুল আহমেদ।

এ সময় তারা স্থানীয় কৃষক, জেলে ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সদস্যদের বক্তব্য লিপিবদ্ধ করেন। সরেজমিন তথ্যানুসন্ধানে তাদের সঙ্গে ছিলেন হাওড় বাঁচাও আন্দোলনের ও হাওর এরিয়া আপলিফমেন্ট সোসাইটি (হাউস)-এর নির্বাহী পরিচালক সালেহিন চৌধুরী শুভ। 

মঙ্গলবার প্রতিনিধিদল সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের সঙ্গে সাক্ষাত করে এ বিষয়ে তার বক্তব্য লিপিবদ্ধ করেন। জেলা প্রশাসক বলেন, গত কয়েক বছরের তুলনায় এবারে সন্তোষজনকভাবে বাঁধ পুণনির্মাণ ও মেরামতের কাজটি সম্পন্ন করা গেছে। লোকবল ও সময়ের সীমাবদ্ধতার কারণে পুরো কার্যক্রম যথাযথভাবে পরিবীক্ষণ করা সম্ভব না হলেও এ বিষয়ে কোনো অনিয়মের তথ্যপ্রমাণ পাওয়া গেলে সেখানে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি