কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার পুজকরা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকসহ পরিচালনা কমিটির সদস্যদের সই জাল করে শূন্য পদে নিয়োগ দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য বেলাল হোসেন, আব্দুল মান্নান, মো. শাহজাহান মেম্বার ও তাসলিমা বেগম মঙ্গলবার কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। 

বিষয়টি শিক্ষা বোর্ড তদন্ত করবে বলে জানিয়েছেন চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুস ছালাম। মাউশির প্রতিনিধি ও কুমিল্লা জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাশেদা আক্তার নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগে জানা যায়, পুজকরা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফেরদৌসী বেগম গত বছর ২৫ নভেম্বর এবং সহকারী প্রধান শিক্ষক আবদুল মান্নান চলতি বছর ৩১ জানুয়ারি অবসর নেন। এতে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মাহমুদা আক্তারকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক করা হয় এবং শূন্য পদে নিয়োগের জন্য পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। এদিকে প্রধান শিক্ষক পদে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মাহমুদা আক্তার আবেদন করায় বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক শহিদুল ইসলামকে তার স্থলাভিষিক্ত করা হয়।

অভিযোগে বলা হয়, নিয়োগ প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভার রেজুলেশনে কমিটির সভাপতি মো. শাহাজাহান চৌধুরী বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকসহ অন্য সদস্যদের স্বাক্ষর জাল করেন। তিনি তার পছন্দের ব্যক্তিদের নিয়োগ দিতে বিদ্যালয়ের মূল রেজুলেশন ও নোটিশ বই ব্যবহার না করে নতুন বই বাজার থেকে কিনে ব্যবহার করে নিজের কাছে রেখে দেন। এ ছাড়া তিনি যথাযথভাবে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করেননি।

এ অবস্থায় গত ১৮ জুন প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার নিতে আসা মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালকের (ডিজি) প্রতিনিধি ও কুমিল্লা জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাশেদা আক্তার নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত করে দেন। অভিযোগকারীরা কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে দাখিল করা অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষক নিয়োগের জন্য কমিটির সভাপতি মো. শাহাজাহান চৌধুরী যে রেজুলেশন জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে জমা দিয়েছেন, এতে আমার ও কমিটির কয়েকজন সদস্যের সই জাল করা হয়েছে। সময়স্বল্পতার অজুহাত দেখিয়ে স্বাক্ষর জাল করার বিষয়টি তিনি আমার কাছে স্বীকারও করেছেন।

অভিযোগ বিষয়ে পুজকরা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি শাহাজাহান চৌধুরী বলেন, স্বাক্ষর জালের অভিযোগ সঠিক নয়। তবে এ নিয়োগ প্রক্রিয়ায় যা কিছু হয়েছে, তা সবার সঙ্গে সমঝোতার ভিত্তিতেই হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে কুমিল্লা জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাশেদা আক্তার বলেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয়ে নিয়োগ বোর্ডের আয়োজন করা হয়। কিন্তু বিধি অনুসারে ম্যানেজিং কমিটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি স্থানীয় দৈনিকে দেখাতে না পারায় নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে।

কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুস ছালাম সমকালকে বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে সত্যতা পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।