ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রত্যেক নেতাকর্মীকে অতন্দ্র প্রহরীর মতো বাংলার জনগণের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে যেন কেউ আর ছিনিমিনি খেলতে না পারে, সেজন্য সবাইকে সতর্ক থাকতেও বলেছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ দেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে আর কখনও কেউ যেন ছিনিমিনি খেলতে না পারে, সেজন্য অতন্দ্র প্রহরীর মতো বাংলাদেশের মানুষের পাশে থাকবে আওয়ামী লীগের প্রত্যেকটা নেতাকর্মী, সেটাই আমি চাই।’ খবর বাসসের

তিনি আওয়ামী লীগকে হীরক খণ্ডের সঙ্গে তুলনা করে বলেন,আওয়ামী লীগকে বলব হীরার টুকরা। যতবার কেটেছে ততবার আরও জ্বলজ্বল হয়েছে। আরও নতুনভাবে জ্যোতি ছড়িয়েছে। আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই বাংলাদেশ বিশ্বে একটা মর্যাদা পেয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বুধবার বিকেলে আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে কেন্দ্রীয় সংগঠন আয়োজিত আলোচনা সভার সভাপতিত্বে এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মূল অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আলোচনা সভার প্রারম্ভিক বক্তৃতা করেন। দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদও বক্তৃতা করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, এই আওয়ামী লীগ অনেক ঘাত-প্রতিঘাত সহ্য করেছে, অনেক চড়াই উৎরাই, কঠিন পথ পার হয়েছে। আজকে আমরা ক্ষমতায় আছি বলেই মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন হচ্ছে। এই বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে আর কখনও কেউ যেন ছিনিমিনি খেলতে না পারে সেজন্য অতন্দ্র প্রহরীর মতো মানুষের পাশে থাকবে আওয়ামী লীগের প্রত্যেকটা নেতাকর্মী, সেটাই আমি চাই।

আওয়ামী লীগকে একটা প্রবীণ ও ঐতিহ্যবাহী দল আখ্যায়িত করে শেখ হাসিনা বলেন, আজকে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে বলেই দেশের মানুষের অন্ন,বস্ত্র, শিক্ষা, চিকিৎসাসহ বিভিন্ন মৌলিক চাহিদার সংস্থানের সুযোগ আছে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় না থাকলে জনগণ আবার বঞ্চিত হবে। কাজেই তারা যেন আর বঞ্চনার স্বীকার না হয়।

দলের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড.আব্দুস সোবহান গোলাপ গণভবন থেকে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভাটি সঞ্চালনা করেন। আলোচনা সভায় আরও বক্তৃতা করেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড.আব্দুর রাজ্জাক, সাবেক মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী এবং অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক প্রমুখ।

বিষয় : আওয়ামী লীগ জনগণ রাজনীতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

মন্তব্য করুন