চিনি বা লবণ দুটিই অতিরিক্ত পরিমাণে খেলে শরীরের ক্ষতি হয়। কিন্তু দুটির মধ্যে যদি একটিকে কমাতে বলা হয় তাহলে কোনটা আগে কমাবেন তা জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

লবণ : প্যাকেটের ভাজাভুজি, রাস্তার খাবারে লবণের পরিমাণ বেশি থাকে। লবণের কারণেই এতে ব্যাপক পরিমাণে সোডিয়াম থাকে। ‘লাইফ সায়েন্স’ শীর্ষক জার্নালে প্রকাশিত গবেষণাপত্র অনুযায়ী, অল্প এবং সীমিত পরিমাণে লবণ শরীরে তরলের ভারসাম্য বজায় রাখে, রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখে। কিন্তু পরিমাণে বেশি হয়ে গেলেই হৃদরোগের আশঙ্কা বাড়ে। এতে কিডনিরও ক্ষতি হয়।

চিনি: বেশিরভাগ খাবারই চিনি ছাড়া অসম্পূর্ণ। অল্প পরিমাণে চিনি তেমন কোনও ক্ষতি করে না— এমনই একটা ধারণা দীর্ঘ দিন ধরে চলে আসছিল। কিন্তু সম্প্রতি‘ কুইন্সল্যান্ড হেলথ' জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে দাবি করা হয়েছে, অল্প চিনিও ক্ষতি করে। চিনির পরিমাণ বাড়লে ক্ষতির আশঙ্কাও বাড়ে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, দুটির মধ্যে কোন একটি বাদ দিতে হলে অবশ্যই চিনি বাদ দেওয়া উচিত। তাদের ভাষায়, লবণ যেমন হৃদরোগের আশঙ্কা বাড়িয়ে দেয় তেমনি চিনিও একই কাজ করে। শুধু তাই নয়, চিনি রক্তচাপ, অবসাদ, ডায়াবেটিসের মাত্রাও বাড়িয়ে দিতে পারে। এমনকি বেশি পরিমাণে চিনি খেলে ধীরে ধীরে বুদ্ধির পরিমাণও কমে যায়।