কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় ও সদর উপজেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে মোবাইল ফোনে চার্জ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মো. রিয়াদ মিয়া (১০) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়। শুক্রবার সকালে উপজেলার চণ্ডিপাশা ইউনিয়নের চণ্ডিপাশা গ্রামে শিশুটির নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. রিয়াদ মিয়া চণ্ডিপাশা গ্রামের মো. ইসমাইল হোসেনের ছেলে এবং স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র ছিল। এ ঘটনায় শিশুটির পরিবার ও গ্রামে শোকের ছায়া নেমে আসে।

পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সারোয়ার জাহান জানান, শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে রিয়াদ একটি মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার জন্য ঘরের বৈদ্যুতিক বোর্ডে চার্জার লাগাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। আবেদনের প্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় বিদ্যুতের কাজ করতে গিয়ে সুমন ভূঁইয়া (৩০) নামে এক ইলেকট্রিশিয়ানের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে সদর উপজেলার লতিবাবাদ ইউনিয়নের অষ্টবর্গ গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত সুমন ভূঁইয়া অষ্টবর্গ গ্রামের মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার ছেলে।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মো. আবুবকর সিদ্দিক জানান, সুমন ইলেকট্রিশিয়ানের কাজ করতো। শুক্রবার দুপুর ১টা ২০ মিনিটের দিকে স্থানীয় মসজিদ থেকে পাশের একটি স্থাপনায় নেওয়া বিদ্যুতের লাইন সে বিচ্ছিন্ন করার কাজ করছিল। এ সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে সে গুরুতর আহত হয়। এলাকাবাসী উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।