করোনার উচ্চ সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার ঘোষিত লকডাউনের চতুর্থ দিনেও লক্ষ্মীপুরে কঠোর অবস্থানে দেখা গেছে জেলা প্রশাসন, আইনশৃংখলা ও সেনাবাহিনীর সদস্যদের। রোববার সকাল থেকে জেলা ও উপজেলার গুরুত্বপুর্ণ স্থানে সেনাবাহিনী ও আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা টহল দিতে দেখা গেছে। ভ্রাম্যমান আদালতও মাঠে তৎপর রয়েছে।

লকডাউন অমান্য করায় জেলায় এ পর্যন্ত ২১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলায় ২ লাখ ৪৬ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। সদর, রামগতি, কমলনগর, রায়পুর ও রামগঞ্জ উপজেলায় বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে জরিমানা করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের গঠিত ১৮টি ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্টেটরা।
 
রোববারও লক্ষ্মীপুরে সকল ধরনের গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। সড়কে শুধুমাত্র কিছু সংখ্যক রিকশা ও অটোরিকশা চলাচল করতে দেখা গেছে। মাঝে মধ্যে জরুরি পরিসেবায় নিয়োজিত কিছু যানবাহন চলাচল করছে। পাঁচটি উপজেলার প্রতিটি শপিংমলসহ দোকান-পাট বন্ধ রয়েছে। সব সড়ক রয়েছে ফাঁকা। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না সাধারণ মানুষ। তবে লকডাউনে খেটে খাওয়া মানুষেরা পড়ছেন চরম দুর্ভোগে।

জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ বলেন, লকডাউন বাস্তবায়ন করতে জেলায় ১৮টি ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা মাঠে রয়েছেন। শহরে টহল দিচ্ছে আইনশৃংখলা বাহিনী, বিজিবি ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা। লকডাউনের প্রথম দুইদিনে ২১৩টি মামলায় ২লাখ ৪৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এটি অব্যাহত থাকবে।

এদিকে সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল গফ্ফার জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ১ জনসহ করোনায় এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৫৫ জন। জেলায় মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩৩৩১জনের। এছাড়া করোনা উপসর্গসহ মোট মৃত্যু হয়েছে ৭৮জনের।