খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাংবাদিক এম এ সবুর রানাকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি জে বি এম হাসানের নেতৃত্বাধীন একক ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার এই আদেশ দেন। 

আদালতে সবুর রানার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী শেখ মো. জাকির হোসেন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

গত ১৮ এপ্রিল এনটিভির খুলনা প্রতিনিধি আবু তৈয়ব মুন্সির ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি থেকে খুলনা সিটি মেয়রের বিপক্ষে একটি স্ট্যাটাস দেওয়া হয়। তাতে সবুর রানাও মন্তব্য করেন।

এ স্ট্যটাসের মাধ্যমে সিটি মেয়রকে সামাজিকভাবে হেয় করা হয়েছে-এমন অভিযোগে ২০ এপ্রিল মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক খুলনা সদর থানায় ওই দুই সাংবাদিকের নাম উল্লেখ করে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা দায়ের করেন। 

ওইদিন রাতে এনটিভির খুলনা প্রতিনিধি আবু তৈয়ব মুন্সিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ২১ দিন কারাগারে থাকার পর তিনি জামিনে মুক্ত হন। 

পরে ৩ জুন মামলার অপর আসামি সাংবাদিক এম এ সবুর রানা জামিনের জন্য আদালতে হাজির হন৷ আদালত তার জামিন  আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান। এরপর তিনি হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার তাকে জামিন দেন হাইকোর্ট। 

সবুর রানা রামপাল উপজেলার সিংগড় ঘুনিয়ার মৃত ডা. আজিজ মোল্লার ছেলে। তিনি যশোর থেকে প্রকাশিত দৈনিক লোকসমাজের রামপাল প্রতিনিধি ও রামপাল প্রেসক্লাবের সভাপতি।