রাজশাহী, নাটোর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে কর্মরত পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মী ও সাধারণ মানুষদের নিরাপত্তার জন্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগ্রুপ প্রাণ-আরএফএল। ২৮ জুন থেকে ৩ জুলাই পর্যন্ত গ্রুপের পক্ষ থেকে এসব জেলায় সার্জিকাল মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্রদান করা হয়।  

রাজশাহী জেলা পুলিশ, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, রাজশাহী ডায়াবেটিক অ্যাসোসিয়েশন জেনারেল হাসপাতাল, গোদাড়াগাড়ী থানা পুলিশ, চাঁপাইনবাগঞ্জ জেলা পুলিশ, নাটোর জেলা পুলিশ, নাটোর সদর হাসপাতাল এবং নাটোরের তেবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা প্রাণ-আরএফএল এর কাছ থেকে এসব সুরক্ষা সামগ্রী গ্রহন করেন। এছাড়া গ্রুপের পক্ষ থেকে জেলার বিভিন্ন স্থানে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বিভিন্ন প্রকার সচেতনতা মুলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের বিপণন পরিচালক কামরুজ্জামান কামাল বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবিলার লড়াইয়ে প্রথম থেকেই সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসেবে বিভিন্নভাবে দেশ ও মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ। এর অংশ হিসেবে এবার রাজশাহী, নাটোর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ এ কর্মরত পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মী ও সাধারণ মানুষদের নিরাপত্তার জন্য সুরক্ষাসামগ্রী বিতরণ করা হয়।  

তিনি আরো বলেন, এসব জেলার বিভিন্ন স্থানে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য লিফলেট বিতরণ ও হাত ধোঁয়া কর্মসূচি পরিচালনা করছে গ্রুপটি।

গত বছরের মার্চে দেশে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হলে ‘পাশে আছি বাংলাদেশ’ কর্মসূচির আওতায় তিন ধাপে কর্মহীন হয়ে পড়া প্রায় ৭০ হাজার পরিবারের মাঝে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের পক্ষ থেকে খাদ্য ও সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এছাড়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও ভোলার ১৬টি হাসপাতালে মাস্ক, পিপিই, হ্যান্ড গ্লাভস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও করোনার নমুনা সংগ্রহের বুথ প্রদান করে গ্রুপটি। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি