দেশের সব হাসপাতালে পর্যাপ্ত অক্সিজেন সেবা নিশ্চিতসহ প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহ, দক্ষ জনবল নিয়োগ ও করোনা পরীক্ষা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক যৌথ বিবৃতিতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক দীপক শীল এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে তারা বলেন, করোনা পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণের বাইরে। লকডাউন দিয়েও সংক্রমণ ঠেকানো যাচ্ছে না। এমন অবস্থায় ঢাকার বাইরের জেলাগুলো বিশেষ করে সীমান্তবর্তী জেলাগুলোর হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তীব্র অক্সিজেন সংকট দেখা দিয়েছে। কয়েক দিন আগেও সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অক্সিজেন সিস্টেম বিকল হয়ে ছয়জন রোগী মারা গেছেন। নেই প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জামও।

তারা বলেন, করোনায় মৃত্যুর মিছিল ঠেকানো যাচ্ছে না কিছুতেই। অথচ সরকারের সদিচ্ছা থাকলে এমন পরিস্থিতি এড়ানো যেত। দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের আগে তারা পর্যাপ্ত সময় পেয়েছিল পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের। সরকার অক্সিজেন সেবা নিশ্চিত, হাসপাতাল এবং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোয় পর্যাপ্ত চিকিৎসা সরঞ্জামের ব্যবস্থা এবং দক্ষ জনবল নিয়োগ দিতে পারত। কিন্তু সরকার সে পথে না হেঁটে করোনা মোকাবিলায় মানুষের হার্ড ইমিউনিটির ওপর ভরসা রাখতে চাইল। আজ বাংলাদেশের জনগণ সরকারের এ উদাসীনতার খেসারত দিচ্ছে।

নেতারা আরও বলেন, মিথ্যা অভিযোগে অফিসিয়াল সিক্রেসি অ্যাক্টে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা এবং আটক করা হলো। অথচ টিকা সংক্রান্ত রাষ্ট্রের গোপন তথ্য ফাঁস করার পরও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিতে দেখিনি। সরকার তার আমলাদের রক্ষা করতে ব্যস্ত; জনগণকে নয়।

তারা বলেন, শ্রমজীবী মানুষের জন্য রেশনের ব্যবস্থা করতে হবে। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সমন্বিত উদ্যোগ নিতে হবে।