চট্টগ্রামের আলোচিত মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলার আসামি পলাতক মুছাসহ তিন জনের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আদালত।  

সোমবার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহনাজ রহমানের আদালত পিবিআইয়ের আবেদনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

৫ জুলাই পিবিআইয়ের তদন্ত কর্মকর্তা সন্তোষ কুমার চাকমা তিন আসামির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আদালতে আবেদন করেছিলেন।

নিষেধাজ্ঞাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- কামরুল শিকদার ওরফে মুছা, এহতেশামুল হক ওরফে ভোলা ও মো. কালু। এদের মধ্যে মুছা ও কালু শুরু থেকে নিখোঁজ। ভোলা জামিনে গিয়ে পলাতক।

তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা বলেন, ‘পলাতক তিন আসামির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আদালতে আবেদন করেছিলাম। শুনানি শেষে আদালত নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন। দেশের সব স্থল ও বিমানবন্দরে চিঠি পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড়ে সড়কে গুলিতে ও ছুরিকাঘাতে খুন হন মাহমুদা আক্তার মিতু। ওই দিন রাতে তার স্বামী তৎকালীন পুলিশ সুপার বাবুল আক্তার বাদি হয়ে পাঁচলাইশ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

ডিবি পুলিশ তদন্তে কুলকিনারা করতে না পারায় ২০২০ সালের জানুয়ারিতে আদালত মামলাটির তদন্তের ভার পিবিআইকে দেয়। তারপর ১১ মে দিনভর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে এ হত্যা মামলায় সম্পৃক্ততা মেলায় বাবুল আক্তারকে হেফাজতে নেয় পিবিআই। 

১২ মে মিতুর পিতার মোশাররফ হোসেনের করা নতুন মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেয় পিবিআই। একই সাথে বাবুলের করা মামলাটির চুড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে জমা দেওয়া হয়। আসামি বাবুল আক্তার এখন ফেনী কারাগারে বন্দি রয়েছেন।