বৈরিতা ভুলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করেছেন তার ছোট ভাই নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

চিকিৎসার উদ্দেশে আমেরিকা যাওয়ার আগের দিন মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বড় ওবায়দুল কাদেরের সংসদ ভবন এলাকার সরকারি বাসায় যান তিনি। এরপর বেশ কিছু সময় দুই ভাই কথাবার্তা বলেন।

বুধবার বেলা দেড়টায় বিমানে আমেরিকার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে সাম্প্রতিক রাজনীতিতে বহুল আলোচিত রাজনীতিবিদ কাদের মির্জার।

সাাক্ষাতের পরপরই এ বিষয়ে কাদের মির্জা পরে নিজেই তার ফেসবুক পেজ থেকে একটি পোস্ট দিয়েছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘চিকিৎসার জন্য আমেরিকার উদ্দেশে রওনা হওয়ার আগে আমার শ্রদ্ধেয় বড় ভাই, জননেতা জনাব ওবায়দুল কাদের এমপির সঙ্গে সাক্ষাৎ করে দোয়া নিই। এ সময় কোম্পানিগঞ্জের বিরাজমান রাজনৈতিক অস্থিরতা স্থিতিশীল করার লক্ষ্যে আলোচনা হয়।’

তিনি আরও বলেন, সকলে ধৈর্যবান হয়ে শান্তির লক্ষ্যে কাজ করুন। শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য যে যার অবস্থান থেকে সহযোগিতা করুন। জয় বাংলা। জয় বঙ্গবন্ধু।’       

এর আগে নোয়াখালীর রাজনীতির নানা বিষয় নিয়ে ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বিরোধে জড়িয়ে পড়েন কাদের মির্জা। প্রায়ই বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে বক্তৃতা-বিবৃতি দিয়ে আসছিলেন তিনি।

এই অবস্থায় গত ২২ মে ওবায়দুল কাদেরের সরকারি বাসভবনে গিয়ে ফুল দিয়ে বড় ভাইয়ের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন কাদের মির্জা। ওইদিনের সাক্ষাৎ শেষে দেওয়া ফেসবুক  স্ট্যাটাসে বড় ভাইয়ের সঙ্গে ‘মান-অভিমান’ এর অবসানের কথা জানিয়েছিলেন। অবশ্য পরে আবারও একই অবস্থানে ফিরে যান তিনি।