বগুড়ায় আওয়ামী লীগের এক নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বগুড়া শহরতলীর ফাঁপোড় ইউনিয়নের ফাঁপোড় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মমিনুল ইসলাম রকি (৩২) ফাঁপোড় মন্ডলপাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে এবং ফাঁপোড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন।

এছাড়াও তিনি আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ফাঁপোড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিলেন। তার নামে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

জানা গেছে, রকি এলাকায় বসবাস করতেন না। থাকতেন, শহরের একটি ভাড়া বাসায়। তবে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সামনে রেখে তিনি প্রায়ই এলাকায় বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ গ্রহণ করতেন।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তিনি ফাঁপোড় হাটখোলা মাঠে লোকজনের সঙ্গে গল্প করছিলেন তিনি। এসময় একদল দুর্বৃত্ত তাকে ঘিরে ফেলে। তার সহযোগীরা এ সময় পালিয়ে গেলে দুর্বৃত্তরা রাম দা দিয়ে কুপিয়ে তাকে ফেলে রেখে যায়।

পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ১০টায় তিনি মারা যান।

রকি হত্যার বিষয়ে তাৎক্ষণিক সুনির্দিষ্ট কোনও কারণ জানা যায়নি। তবে স্থানীয় ফাঁপোড় উচ্চ বিদ্যালয়ের সভপতি পদ নিয়ে একটি পক্ষের সাথে তার বিরোধ ছিল বলে জানা গেছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেজাউল হক ঠান্ডুর সাথে রকির বিরোধ ছিল। এছাড়াও রকির বিরুদ্ধেও হত্যাসহ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে।

বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ বলেন, হত্যাকাণ্ডের পর পরই এলাকায়  অভিযান শুরু করা হয়েছে। পুলিশের একাধিক টিম জড়িতদের শনাক্ত করতে মাঠে নেমেছে।