কুষ্টিয়ায় খোকসায় বাশারুজ্জামান নামে এক ব্যক্তিকে ‘ভুলবশত’ দুইবার টিকা দেওয়ার ঘটনায় সিনিয়র স্টাফ নার্স শামিমা ওরফে শারমিনকে কারণ দর্শানোর নোটিস দেওয়া হবে। 

খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ কামরুজ্জামান এই তথ্য নিশ্চিত করে সমকালকে বলেন, ‘শনিবার অফিস খুললেই নার্সকে কারণ দর্শানো নোটিশ দেওয়া হবে। তার জবাব সন্তোষজনক না হলেই তদন্ত কমিটিও গঠন করা হতে পারে।’

তিনি জানান, ডিউটি রোষ্টারমাফিক ওই টিকা কেন্দ্রে নার্স শামিমার দায়িত্ব শেষ হয়েছে।  

গত বৃহস্পতিবার খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা টিকা দান বুথে কর্তব্যরত সিনিয়র স্টাফ নার্স শামিমা ওরফে শারমিন টিকা নিতে আসা বাশারুজ্জামান (৩৮) কে তিন মিনিটের ব্যবধানে দুইবার করোনা টিকা পুশ করেন। 

খোকসা পৌর এলাকার ১ নস্বর ওয়ার্ডে বুজরুখ মির্জাপুরের বাসিন্দা বাশারুজ্জামান বলেন, ‘আমি ভালো আছি। কোনো ব্যথা নেই। সকালে গরুর ফার্মেও কাজ করে আসছি। কোনো সমস্যা মনে হয়নি।’

তিনি জানান, রেজিস্ট্রেশনের সময় ‘ভুল করে’ তাকে শোমসপুর ইউনিয়ন এলাকার বাসিন্দা বলে চালিয়ে দেন কম্পিউটারের দোকানি। 

অভিযুক্ত স্টাফ নার্স শামিমা ওরফে শারমিননের ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি সাড়া দেননি।

খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. কামরুজ্জামান বলেন, ‘ভুলবশত দুইবার টিকা নেওয়া বাশারুজ্জামানের প্রথম ডোজ একটু বেশি হয়েছে। এটাতে মারাত্মক ক্ষতির সম্ভাবনা নেই। তবে তাকে নির্দিষ্ট সময়ে দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিতে হবে।’