কুমিল্লার দেবিদ্বারে বিয়ের কথা বলে পঞ্চম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে শাহীন মিয়া (২৩) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার ভোর রাতে উপজেলার রাজামেহার গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার শাহীন মিয়া উপজেলার সৈয়দপুর গ্রামের মো. আব্দুর রহিমের ছেলে।  

পুলিশ জানায়, শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নির্যাতিত মেয়েটিকে বিয়ের কথা বলে দেবিদ্বার উপজেলার রাজামেহার ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের নিত্য কবিরাজের পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে যায় অভিযুক্ত শাহীন মিয়া। পরে সেখানেই তাকে ধর্ষণ করেন। ঘটনাটি জানাজানি হলে রোববার রাতে ওই ছাত্রীর বড় ভাই থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে এক আত্বীয়ের বাড়ি থেকে অভিযুক্ত শাহীন মিয়াকে গ্রেপ্তার করে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. সোহরাব হোসেন বলেন, অভিযুক্ত শাহীন ঘটনার পর থেকে আত্মগোপন করেছিলেন। পরে তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় রাজামেহার এলাকার শাহীনের ফুফুর বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সোমবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

দেবিদ্বার থানার ওসি মো. আরিফুর রহমান বলেন, অভিযোগে পেয়ে ওই কিশোরীকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে আসা হয়েছে। সোমবার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেয়েটিকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে।