মৌলভীবাজারের লাঠিটিলার ক্রান্তীয় চিরসবুজ ও দেশের অন্যতম জীববৈচিত্র্যপূর্ণ বনভূমিতে সাফারি পার্ক নির্মাণের পরিকল্পনা বাতিলের দাবি জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে সংস্থাটি পর্যটনের নামে পরিবেশ বিধ্বংসী প্রকল্প গ্রহণের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। পাশাপাশি এ-সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশ করায় গণমাধ্যমকর্মীদের ভয়ভীতি প্রদর্শনকে স্বাধীন গণমাধ্যমের জন্য হুমকি হিসেবে বিবেচনা করছে টিআইবি।

বিবৃতিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, দুর্নীতি, অনিয়ম ও ঘুষের অভিযোগে গ্রেপ্তার একজন সাবেক বন সংরক্ষকের নেতৃত্বে একটি সমীক্ষার ওপর নির্ভর করে সংরক্ষিত বনের মধ্যে সাফারি পার্ক নির্মাণের সার্বিক উদ্দেশ্যকেই প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। মৌলভীবাজারে জাতীয় উদ্যানসহ বেশ কয়েকটি ইকো পার্ক থাকা সত্ত্বেও ক্রান্তীয় চিরসবুজ বনে সাফারি পার্ক নির্মাণের প্রয়োজনীয়তা ও যৌক্তিকতা কতটুকু? সংরক্ষিত বনের মধ্যে সাফারি পার্ক স্থাপন এবং বিবিধ অবকাঠামো নির্মাণ হলে জীববৈচিত্র্য ধ্বংস হওয়াসহ বন্য প্রাণীর অস্তিত্ব বলুপ্ত এবং দীর্ঘমেয়াদে পুরো বন ধ্বংস হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন বন্যপ্রাণী ও পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা। এ আশঙ্কা অমূলক নয়।

তিনি বলেন, এই সংরক্ষিত বনে সাফারি পার্ক স্থাপন করা হলে বনের মধ্যে ছয়টি গ্রামের তিনশ পরিবার ও বননির্ভর স্থানীয় জনগোষ্ঠী উচ্ছেদের আশঙ্কা রয়েছে। তাই সেখানে সাফারি পার্ক নির্মাণ না করে স্থানীয় অধিবাসী ও বিশেষজ্ঞদের মতামতের প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে।