সম্প্রতি মাদক ও যৌন সরঞ্জামাদিসহ র‌্যাবের হাতে আটক রাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার নজরুল ইসলাম রাজ সর্বশেষ চিত্রনায়িকা আঁচলের নায়ক হতে চেয়েছিলেন। ২০১৯ সালে নিজের জন্মদিনে 'প্রিয়জন প্রয়োজন’ নামে ওই ছবির ঘোষণা দিয়েছিলেন রাজ। সে সময় জানান, ছবিটি নিজেই প্রযোজনা করবেন তিনি।

ছবির পরিচালক হিসেবে সে সময় উল্লেখ করা হয় দেবাশীষ বিশ্বাসের নাম। জন্মদিনের ওই আয়োজনে পরিচালকও হাজির ছিলেন। ছবিটির চিত্রনাট্যকার হিসেবে জানানো হয় কলকাতার এনকে সলিলের নাম। 

জন্মদিনের ওই আয়োজনে হাজির ছিলেন আঁচল। রাজের বিপরীতে নায়িকা হওয়ার প্রস্তাব করতালি দিয়ে গ্রহণ করেছিলেন তিনি। পরে গণমাধ্যমে আঁচল বলেন, 'আমার বিপরীতে দুই নায়ককে দেখা যাবে। নজরুল রাজ ও আরেক নায়ককে ছবিতে দর্শকরা দেখতে পাবেন। আরও চমক থাকবে ছবিতে।'

এদিকে গ্রেপ্তারের পর র‌্যাব জানায়, রাজ একেক সময় একেক পরিচয়ে চলাফেরা করেন। কখনও চিত্রপরিচালক, কখনও ব্যবসায়ী আবার কখনও রাজনীতিবিদ। প্রতারণার মাধ্যমে তিনি অঢেল টাকার মালিক বনে গেছেন। 

নজরুল রাজের বাসা থেকে যৌন উত্তেজক সমাগ্রী, বিদেশি মদ, ইয়াবা ও সেক্স টয় উদ্ধার করার কথা জানিয়েছে র‌্যাব। বিশেষ ধরনের একটি বিছানাও পাওয়া গেছে সেখানে। তার মোবাইল ফোনে অসংখ্য তরুণীর পর্নো ভিডিও পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

এদিকে নজরুল রাজের আটকের পর আঁচলের নাম উঠে আসে মিডিয়ায়। একটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েই দেয়, আঁচল পুলিশের নজরদারিতে আছেন। তবে সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে আঁচল তার ফেসবুকে জানান, ‘মিথ্যা অপবাদ ধারালো ছুরির চেয়েও ভয়ংকর। কাউকে অপবাদ দেওয়ার আগে তার সত্যতা যাচাই করা উচিত।’