একদম নীরব হয়ে গেছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রে নায়িকা পরীমণি। কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের রজনীগন্ধা ভবনে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন তিনি। চিন্তিত সময় কাটাচ্ছেন আলোচিত এ নায়িকা।

কারাগার সূত্রে জানা যায়, পরীমণিকে কারাগারে চিন্তামগ্ন দেখা যাচ্ছে। তবে তিনি স্বাভাবিক খাবার খাচ্ছেন। অন্য বন্দিদের জন্য যেসব খাবার, পরীমণির জন্যও সেসবই দেওয়া হচ্ছে। এভাবেই পরীমণির কোয়ারেন্টাইনের দুইদিন চলে গেছে।

পরীমণিকে গত শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে কাশিমপুর মহিলা কারাগারে নেওয়া হয়। এরপর থেকে তিনি ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে। গত দুইদিন পরীমণি স্বাভাবিক ও সুস্থ রয়েছেন বলে জানা গেছে।

১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার পর তার করোনা পরীক্ষা করা হবে। এতে করোনা শনাক্ত না হলে সাধারণ হাজতির মতোই তাকেও রাখা হবে বলে সূত্র জানিয়েছে।

কাশিমপুর কারাগার-২ এর জেল সুপার ও মহিলা কারাগারের ভারপ্রাপ্ত জেল সুপার আব্দুল জলিল জানান, পরীমণি কারাগারে সুস্থ রয়েছেন। তাকে প্রথমদিন থেকেই হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। সেখানে ১৪ দিন রাখার পর সাধারণ হাজতির মতোই তাকেও রাখা হবে।

গত ৪ আগস্ট বিকেলে রাজধানীর বনানীর বাসা থেকে পরীমণিকে আটক করা হয়। এসময় সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক জব্দ করেন র্যারপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র্যা ব) সদস্যরা। এরপর তার বিরুদ্ধে মাদক মামলা দিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নেওয়া হয়। দুই দফা রিমান্ড শেষে শুক্রবার তাকে জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।