কুষ্টিয়ায় মানতের মাংস ভাগাভাগি নিয়ে সংঘর্ষে কবির খান (৩৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। শনিবার বিকেলে সদর উপজেলার ঝাউদিয়া ইউনিয়নের ঝাউদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত কবির খান কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ঝাউদিয়া শাহি মসজিদপাড়া এলাকার প্রয়াত মান্নান খানের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কয়েক সপ্তাহ ধরে মসজিদে মানতের মাংস ভাগাভাগি ও আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে দু'পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। এরই মধ্যে শনিবার ঝাউদিয়া শাহি মসজিদে চুয়াডাঙ্গার দর্শনা এলাকা থেকে কয়েকজন আসেন। তারা মানত হিসেবে মসজিদে একটি খাসি দেন। সেই খাসির মাংস ভাগাভাগিকে কেন্দ্র করে আসাদ চৌধুরী ও মুরাদ চৌধুরী গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে কবির খান নিহন হন।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার ওসি মুস্তাফিজুর রহমান রতন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ঝাউদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কেরামত আলী বিশ্বাস বলেন, মানতের মাংস ভাগাভাগিকে কেন্দ্র করে দু'পক্ষের সংঘর্ষ হয়। লাঠির আঘাতে কবির খানের মৃত্যু হয়েছে।

ঝাউদিয়া শাহি মসজিদ দেশের অন্যতম একটি প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন। জেলা সদরের ঝাউদিয়া গ্রামে অবস্থিত বলে গ্রামের নাম অনুসারে এই মসজিদটির নাম রাখা হয়েছে ঝাউদিয়া শাহি মসজিদ। মসজিদটি নির্মাণে ইট, পাথর, বালু ও চিনামাটি ব্যবহার করা হয়েছে। দূরদূরান্ত থেকে এ মসজিদে বহু মানুষ আসেন। তাদের মধ্যে অনেকেই এখানে নানা ধরনের জিনিস দেওয়ার মানত করেন।