নিজেকে তিনি পরিচয় দেন আরএসবি গ্রুপের চেয়ারম্যান হিসেবে। চলাফেরা করেন ভিআইপি কায়দায়। সবসময় তার দুই পাশে থাকে অস্ত্রধারী নিরাপত্তারক্ষীরা। এমন কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। প্রশ্ন ওঠে- আসলে কে এই ব্যক্তি? অবশেষে সশস্ত্র বলয়ে চলাফেরা করা সেই মেজবাহ উদ্দিন সরকার রুবেলকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। বুধবার রাতে রাজধানীর উত্তরা-৭ নম্বর সেক্টরে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ৫০ রাউন্ড গুলি ও দুটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। 

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান বলেন, সশস্ত্র দেহরক্ষী নিয়ে রাস্তায় তার ঘুরে বেড়ানোর কিছু ছবি র‌্যাবের সাইবার মনিটরিং টিমের নজরে আসে। পরে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে ত্রাস সৃষ্টি ও জনমনে ভীতি সঞ্চারের অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি আবাসন ও খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। তার অস্ত্রের লাইসেন্স যাচাই করা হচ্ছে।

একটি ছবিতে দেখা যায়, রুবেল ছাতা নিয়ে ঘুরছেন। তার সঙ্গে রয়েছে বিশেষ কটি পরা সশস্ত্র তিন ব্যক্তি। রুবেল ফেসবুকের আদলে তৈরি করা কথিত সামাজিক যোগাযোগ অ্যাপ হার্টসবুকের চেয়ারম্যান এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলে জানা যায়। তবে ফেসবুকে তাকে আরএসবি গ্রুপের চেয়ারম্যান হিসেবে পরিচয় দেওয়া হয়।

র‌্যাব সূত্র জানায়, রুবেল তার সশস্ত্র দেহরক্ষীদের সঙ্গে নিয়ে উত্তরা-পশ্চিম থানা, টঙ্গীসহ আশপাশ এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা করে আসছিলেন। জনমনে ত্রাস সৃষ্টির জন্য তিনি প্রকাশ্যে এমন মহড়া দিতেন। আর সে ছবি ফেসবুকে তার ব্যক্তিগত আইডি থেকে পোস্ট করা হতো। তার অন্তত তিনজন সশস্ত্র দেহরক্ষী আছে। এ ব্যাপারে উত্তরা-পশ্চিম থানায় মামলা হয়েছে।