নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‘আমি উদারভাবে আহ্বান জানিয়ে বলেছি, সত্য কথা লেখেন, আমি আছি আপনাদের পাশে। এ মুহূর্তে সত্য কেউ বলতে চায় না। আমার সামনে এলে আমার বাবার প্রশংসা করে, শামীম ভাইয়ের সামনে গেলে তার বাবার প্রশংসা করে, সেলিম ভাইয়ের সামনে গেলে তার বাবার কথা বলে। কী অদ্ভুত নারায়ণগঞ্জের মানুষ! আমরা সত্য কথা বলতে চাই না। এখন মিথ্যা বলে পকেট ভারী করার যুগ চলছে।’

বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের মধ্যে বই উপহার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মেয়র বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে নির্মমভাবে হত্যার পর নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগকে মুছে দেওয়ার জন্য ষড়যন্ত্র হয়েছিল। এই ষড়যন্ত্রে বহু নেতাকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। আহতও হয়েছেন। বিভিন্ন সামরিক শাসকের ভয়ে অনেকে অনেক কথা বলতে পারেনি। অনেক ইতিহাস সঠিকভাবে লেখা হয়নি। নারায়ণগঞ্জের ইতিহাস পয়সা দিয়ে লেখানো হয়েছে। অনেক সত্য কথা সেখানে নেই।’

তিনি বলেন, ‘১৯৬৬ সালের কথা বইয়ে লেখা আছে। ওই সময় নারায়ণগঞ্জে যে বিশাল জনসভা হয়েছিল, সেই কথা উল্লেখ করা হয়। ৬ দফা আন্দোলনের প্রথম মিটিং এই নারায়ণগঞ্জে হয়েছিল। জনসভা থেকে স্বর্ণের মেডেল উপহার দেওয়া হয়েছিল বঙ্গবন্ধুকে।’

হলি উইলস স্কুলের উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সমাজসেবক জাকিয়া আলী ভূঁইয়া, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার অ্যাডভোকেট নুরুল হুদা, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সাবেক কমান্ডার শাহজাহান ভূঁইয়া জুলহাস, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের আহ্বায়ক শরীফ উদ্দিন সবুজ, দৈনিক সংবাদের চিফ রিপোর্টার সালাম জুবায়ের, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নারী কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম, শাওন অংকন প্রমুখ।