ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলায় নদীতে গোসল করতে নেমে আদিবা আক্তার (৭) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার দুপুরে উপজেলার দনারভিটা গ্রামের ইছামতি নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হয় শিশুটি। বৃহস্পতিবার সকালে শিশুটির লাশ ভেসে ওঠে সিংহেশ্বর ইউনিয়নের বায়রাখালি সেতু এলাকায়।

আদিবা শেরপুরের নকলা উপজেলার বাদাগুরা গ্রামের জুয়েল মিয়ার মেয়ে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ৩ দিন আগে ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার দনারভিটা গ্রামের ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে যায় আদিবা। বুধবার দুপুরে প্রতিবেশী শিশুদের সঙ্গে ইছামতি নদীতে গোসলে নামে শিশুটি। গোসলের এক পর্যায়ে পানিতে তলিয়ে গেলে অন্য শিশুরা চিৎকার শুরু করে। তাদের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন শিশুটির সন্ধান করতে থাকেন। খুঁজে না পাওয়ায় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদলকে ডাকা হয়। ডুবুরিদলও শিশুটিকে উদ্ধারে ব্যর্থ হয়। বৃহস্পতিবার সকালে কয়েক কিলোমিটার দূরে সিংহেশ্বর ইউনিয়নের বায়রাখালি সেতু এলাকায় শিশুটির লাশ ভেসে ওঠে । পরে স্বজনরা লাশ উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

ফুফা সাইদুল ইসলাম বলেন, ‘আমার বাড়িতে বেড়াতে এসে শিশুটির এমন মৃত্যু, মেনে নিতে পারছি না।’

ফুলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, পানিতে ডুবে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফনের জন্য লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।